সর্ব দলীয় বৈঠক শিক্ষা প্রাঙ্গন ফিরে পেতে চলেছে দারিভিট স্কুল

Darivit School is going to get back all-party meeting
সর্ব দলীয় বৈঠক শিক্ষা প্রাঙ্গন

তন্ময় দাস,আজ বাংলা,উত্তর দিনাজপুর ঃ শিক্ষ আন্দোলনের উত্তপ্ত হয় ইসলামপুর। দীর্ঘ দিন থেকেই বন্ধ হয়ে থাকে বিদ্যালয়, শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে নিহত হয় দুই ছাত্র পুলিশের বিরুদ্ধে গুলি চালানো অভিযোগ সামনে আসে। নিরপেক্ষ তদন্তের জন্য অনর দুই পরিবার। অবশেষে দারিভিট বিদ্যালয় ফিরে পেতে চলেছে শিক্ষা প্রাঙ্গন। বিদ্যালয় খোলার বিষয়টিকে সামনে রেখে প্রশাসনের ডাকে আজ সর্ব দলীয় বৈঠক হলো ইসলামপুর বিবেকানন্দ সভাগৃহে।প্রশাসনিক আধিকারিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইসলামপুরের মহকুমা শাসক মণিষ মিশ্র,ইসলামপুরের মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সোমনাথ ঝা সহ এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের বিধায়ক কানাইলাল আগরওয়াল,তৃনমূলের টাউন সভাপতি গঙ্গেস দে সরকার।বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক সুরজিৎ সেন, ইসলামপুর টাউন মন্ডলের সভাপতি সৌম্যরূপ মন্ডল,সিপিএমের জেলা কমিটির সদস্য স্বপন গুহ নিয়োগী,ব্লক কংগ্রেস সভাপতি মুজাফফর হোসেন সহ সমস্ত দলের বিভিন্ন নেতৃত্ব। উল্লেখ্য, গত ২০ সেপ্টেম্বর দাড়িভিট বিদ্যালয়ের উর্দু শিক্ষক নিয়োগের ঘটনাকে কেন্দ্র করে গুলিবিদ্ধ হয়ে দুই পড়ুয়ার মৃত্যু হয় এর পর প্রতিবাদে দুই পরিবারের অভিভাবকদের পাশাপাশি গ্রামবাসীরা বন্ধ করে দেয় স্কুল। রাজ্য ও জেলা প্রশাসনিক ভাবে বার বার স্কুল খোলার উদ্যোগ নেওয়া হলেও স্কুল গেটের সামনে ধর্নায় অবস্থান করে রাজেস ও তাপসের পরিবার। সিবিআই তদন্তের দাবিতে অভিভাবক ও গ্রামবাসীরা অনড় থেকে বিদ্যালয় খুলতেই দেয়নি।যদিও বুধবার তারা সেই দাবি থেকে সরে এসে স্কুল খোলার বিষয়ে শর্ত সাপেক্ষে একমত হন তারা।এরপরই এদিন এই সর্বদলীয় বৈঠক। ইসলামপুরের মহকুমাশাসক মণিষ মিশ্রা জানিয়েছেন, যে ১০ তারীখে স্কুল খোলার বিষয়ে ওই দিন সব দলের রাজনৈতিক নেতাদের স্কুলে ১০.৩০ মিনিটে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে।আর বিজেপির জেলা সাধারন সম্পাদক সুরজিৎ সেন জানিয়েছেন, যে আজকের প্রশাসন মিটিং সফল হয়নি।কারন মিটিংয়ে যাদের থাকার কথা তারা ছিল না।আমরা মহকুমাশাসকে বলেছি আগামী কয়েকদিনের মধ্যে আরেকটা মিটিংয়ের আয়োজন করতে।তবে স্কুল খুলতে আমরা সম্পর্ণ সহযোগিতা করবো।