বাংলাদেশ তুরাগ নদে নৌকাডুবিতে উদ্ধার ৫ মৃত দেহ

বাংলাদেশ তুরাগ নদে নৌকাডুবিতে উদ্ধার  ৫ মৃত দেহ

ঢাকার গাবতলীর আমিনবাজার এলাকায় তুরাগ নদে আজ শনিবার বাল্কহেডের ধাক্কায় নৌকাডুবির ঘটনায় পাঁচটি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ডুবে যাওয়া নৌকাটি Bangladesh  বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) ১১০ ফুট গভীর থেকে ধরলা-৪ ক্রেন বোট দিয়ে বেলা তিনটার দিকে তোলে। এদিকে এ ঘটনায় বিআইডব্লিউটিএর যুগ্ম পরিচালক ফজলুর রহমানকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

নৌ পুলিশের পক্ষ থেকে হত্যা মামলা করা হবে বলে জানিয়েছেন নৌ পুলিশের জ্যেষ্ঠ পুলিশ সুপার খন্দকার ফরিদুল ইসলাম। তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে বাল্কহেডটি চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি। তবে দ্রুত বাল্কহেডটি চিহ্নিত করা সম্ভব হবে।  ফায়ার সার্ভিস ঢাকা সদর দপ্তরের উপপরিচালক দিনমনি শর্মা বলেন, নিখোঁজ চার শিশু ও একজন নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

তাদের বিস্তারিত পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। নৌবাহিনীসহ ফায়ার সার্ভিসের একাধিক দল নিখোঁজদের উদ্ধারে কাজ করছে। ফজলুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় বিআইডব্লিউটিএর পক্ষ থেকে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। কমিটিকে দ্রুত তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। আজ ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে আমিনবাজারের কেবলারচর ঘাট থেকে একটি নৌকা নদীর অপর প্রান্তে দ্বীপনগর ঘাটে যাচ্ছিল। নৌকায় ১৮ জন যাত্রী ছিল।

মাঝনদীতে যাওয়ার পর উত্তর দিক থেকে একটি খালি বাল্কহেড নৌকাটিকে ধাক্কা দিলে সেটি ডুবে যায়। ১৮ যাত্রীর মধ্যে ১০ জন সাঁতরে পাড়ে উঠলেও নারী ও শিশুসহ ৮ জন নিখোঁজ হয়। সকাল ৯টার দিকে সাভার ফায়ার সার্ভিসকে বিষয়টি জানানো হয়। দুপুর ১২টার দিকে দুই শিশু ও এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। বেলা সাড়ে তিনটার দিকে আরেকটি শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বিকেল পাঁচটার দিকে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়।