কবির মৃত্যুর মাত্র ৮ দিন পরই প্রয়াত শঙ্খ ঘোষের স্ত্রী প্রতিমা ঘোষ

কবির মৃত্যুর মাত্র ৮ দিন পরই প্রয়াত শঙ্খ ঘোষের স্ত্রী প্রতিমা ঘোষ

সপ্তাহখানেক আগে করোনা কেড়েছিল কবির প্রাণ। এবার সেই মারণ জীবাণুর কোপেই মৃত্যু হল কবিপত্নীর। কোভিড আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার সকালে প্রয়াত হলেন কবি শঙ্খ ঘোষের (Sankha Ghosh) স্ত্রী প্রতিমা ঘোষ।  মাত্র ৮ দিনের ব্যবধানে করোনা কেড়ে নিল প্রবীণ দম্পতির প্রাণ। পরিবার সূত্রে খবর, প্রতিমাদেবী এতটাই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন যে তাঁকে বাড়ি থেকে স্থানান্তরিত করা যায়নি। বাড়িতেই আজ ভোরে প্রয়াত হয়েছেন তিনি। শোকের ছায়া পরিবার। সাতসকালে দুঃসংবাদ পেয়ে স্তব্ধ কবি পরিবারের শুভানুধ্যায়ীরাও। পরিবার সূত্রে খবর, শঙ্খবাবুর মৃত্যুর পরে শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয় প্রতিমাদেবীরও। বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা নাগাদ মৃত্যু হয় তাঁর।

গত বুধবার, ২১ এপ্রিল নিভে গিয়েছিল কবি শঙ্খ ঘোষের জীবনদীপ। শারীরিক অসুস্থতার কারণে তিনি দীর্ঘদিন ধরে একপ্রকার গৃহবন্দিই ছিলেন। বাইরে কোথাও বেরোতেন না। ঘরের মধ্যেও চলাফেরা কার্যত বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এর মধ্যেই করোনা আক্রান্ত হন ৮৯ বছর বয়সি কবি। গায়ে জ্বর থাকায়, করোনা (Corona Virus) পরীক্ষা করানো হয়েছিল। ১৪ এপ্রিল বিকেলে রিপোর্ট এলে জানা যায়, করোনা থাবা বসিয়েছে তাঁর শরীরে। মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই চালালেও শেষরক্ষা হল না। কবিতার মুহূর্ত স্তব্ধ করে অন্য কবিতালোকে পাড়ি দিয়েছিলেন তিনি। 

কবির প্রয়াণের পর ৮ দিনও কাটল না। করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারালেন তাঁর ৬৫ বছরের সঙ্গিনী। পরিবার সূত্রে খবর, দিন কয়েক আগে শঙ্খ ঘোষের সঙ্গে থাকার কারণে কোভিড সংক্রমিত হন কবিপত্নী প্রতিমা দেবীও। তবে কবির মৃত্যুর পর থেকে তাঁর শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হতে থাকে। কিছুতেই সুস্থ করে তোলা যাচ্ছিল না। পরিজনদের মতে, এতদিনের সঙ্গীকে হারিয়ে স্বভাবতই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন তিনি। সংকট এতটাই বেশি ছিল যে হাসপাতালেও নিয়ে যাওয়া যায়নি তাঁকে। উল্টোডাঙায় নিজের বাড়িতে বৃহস্পতিবার ভোরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন প্রতিমাদেবী।