বলিউড এখন অতীত, ১০০ দিনের কাজ করছেন জ্যাকলিন-দীপিকা?

বলিউড এখন অতীত, ১০০ দিনের কাজ করছেন জ্যাকলিন-দীপিকা?

আজ বাংলা: বলিউড কি এখন অতীত, ১০০ দিনের কাজ করছেন জ্যাকলিন-দীপিকা? কী হল চমকে গেলেন তো? ভাবছেন কোটি কোটি টাকা বেতন পাওয়া বলিউডের এই দুই অভিনেত্রী এখন ১০০ দিনের কাজ করছেন কেন? তাহলে পুরোটা খুলে বলা যাক। 

জাতীয় কর্মসংস্থান সুনিশ্চিতকরন প্রকল্পে এমনই বড়সড় দুর্নীতির খোঁজ মিলল মধ্যপ্রদেশে। দিপীকা জ্যাকলিনদের নামে ভুয়ো জব কার্ড তৈরি করে লাখ লাখ টাকা কারচুপি চলছিল সেখানে। উল্লেখ্য, ১০০ দিনের কাজ সাধারণ গরীব খেটে খাওয়া মানুষদের জন্য। যাতে তারা অন্তত ১০০ দিন কাজ করে নিজের অন্নের সংস্থান সুনিশ্চিত করতে পারে। আর এই কাজেই ভুয়ো জব কার্ড তৈরি করে চলছিল জালিয়াতি। 


জানা গিয়েছে, মোট ১০টি ভুয়ো জব কার্ডের খবর পাওয়া যাচ্ছে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের ঝিরনিয়া জেলায়। জাল জব কার্ডের এই দুর্নীতির সাথে যুক্ত সেখানকার পঞ্চায়েত প্রধান ও জাতীয় কর্মসংস্থান সুনিশ্চিতকরন প্রকল্পের সচিব। ইতিমধ্যেই এই জাল কার্ডগুলি ব্যবহার করে প্রতিমাসে টাকা তুলে নিতেন তারা বলে অভিযোগ।

মনু দুবে নামের একজনের জব কার্ডে রয়েছে দীপিকা পাড়ুকোনের ছবি। যদিও তিনি জানিয়েছেন একদিনও কাজ পাননি তিনি। তার নাম ভাঁড়িয়ে ও দীপিকার ছবি ব্যাবহার করে ৩০ হাজার টাকা তুলে নিয়েছেন অভিযুক্তরা। এদিকে ঝির্নিয়া জেলার বাসিন্দারা অভিযোগ করে জানিয়েছেন যে তাঁরা মনরেগা স্কিমের অন্তর্গত কোনও কাজ পাননি এবং এই দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন পঞ্চায়েত, সচিব ও কর্ম সহায়ক। জেলার পঞ্চায়েতের সিইও গৌরব বেনাল এই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন এবং কীভাবে ভুয়ো জব কার্ড তৈরি করে অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নিচ্ছে সেটাও খতিয়ে দেখা হবে।