করোনার প্রকোপে স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে সংকোচন

করোনার প্রকোপে স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে সংকোচন
আজবাংলা       এইবছর করোনা আবহে সব কিছুতেই বড়সড় পরিবর্তন এসেছে। তাই এবছরের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে কোন কুচকাওয়াজ নয়, হবেনা কোন ট্যাবলো প্রদর্শনী। করোনার কারণে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানেও বদল আনা হয়েছে। এই শুক্রবারই সব 12কে নির্দেশিকা পাঠিয়েছে কেন্দ্র। এরপরই 12ে কিভাবে পালন হবে ১৫ই অগাস্ট, তা বৈঠকে স্থির করল নবান্ন। সূত্র মারফত জানা গেছে, ওই দিনের অনুষ্ঠানে 12ের করোনা যোদ্ধাদের সংবর্ধনা দেওয়া হবে রেড রোডে। কারা সেখানে ডাক পাবেন, সেই তালিকা পরে তৈরি হবে বলে নবান্ন সূত্রে খবর। এই শুক্রবার আসন্ন ১৫ই আগাস্ট অনুষ্ঠান নিয়ে নবান্নে মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা ও পূর্ত দপ্তরের আধিকারিকরা বৈঠক করেন। চলতি বছর করোনার জন্য অনেক ক্ষেত্রেই আমূল পরিবর্তন হচ্ছে। সংক্রমণের জন্য 1কলকাতাবিধি ঠিক রাখতে গিয়ে দেশের স্বাধীনতা দিবসের মত বিশেষ দিনটি এবার অনুষ্ঠানিক ভাবে পালন করা যাবে না। কেন্দ্রের থেকে আরো জানানো হয়েছে, যে জনসমাগম নয়, ভারচুয়াল মিডিয়া দ্বারা পালন করতে হবে এবছরের ১৫ ই আগস্ট। এই প্রথা মেনে প্রধানমন্ত্রী লালকেল্লায় ভাষণ দিলেও, কোনও ভিড় থাকবে না। করোনা আবহে কীভাবে তা পালন করা হবে, সেই সংক্রান্ত কেন্দ্রীয় নির্দেশিকা এদিনই প্রত্যেক 12ে 12ে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে স্বাধীনতা দিবস সংক্রান্ত কথা ও সময়সীমা স্থির করতে নবান্নে বৈঠকে বসেন মুখ্যসচিব। প্রতি বছরের মতো এবারও ওইদিন সকাল ১০টায় রেড রোডে পৌঁছবেন মুখ্যমন্ত্রী। পুলিশের তরফ থেকে ছোট করে কুচকাওয়াজ করা হবে। এরপর সময় মতন পতাকা উত্তোলন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সাথে থাকবে পুলিশের একটি দল। এইবারে কোন অতিথি থাকবেন না।