নিজের যমজ কন্যাদের বিক্রি করার অভিযোগে বাবার বিরুদ্ধে

father's complaint of selling her twin daughters
বিক্রি করার অভিযোগে বাবার বিরুদ্ধে
আজবাংলা  রতন ব্রহ্ম  নামের ওই ব্যক্তি, এক চাল ব্যবসায়ীর কাছে এক লক্ষ টাকার বিনিময়ে নিজের এক কন্যাকে বিক্রি করে বলে অভিযোগ। আরেক কন্যাকে বিক্রি করে রামচন্দ্রপুর গ্রামের এক দম্পতির কাছে আশি হাজার টাকার বিনিময়ে। রতন ব্রহ্ম ও তাঁর স্ত্রী’র একটি দশ বছরের কন্যা আছে। রবিবার রাতে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। উদ্ধার করে তার দুই সন্তানকেও। আজ তাদের শিশু সুরক্ষা কমিটির হাতে তুলে দেওয়া হবে বলেও জানায় পুলিশ  পুলিশ জানিয়েছে আপাতত ওই দুই শিশুকে চাঁদপাড়া স্বাস্থ্যকেন্দ্রে রাখা হয়েছে।  পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রতন কাপড় ফেরি করে। ঘরে তার আট বছরের আর এক মেয়ে রয়েছে। এ দিন দুপুরে একটি উড়ো ফোনে শিশু বিক্রির কথা জানতে পারে পুলিশ। বিকেলে স্থানীয় শিমুলপুরের বাসিন্দা কৃষ্ণকান্ত দাস এবং মহিষকাঠির বাসিন্দা অমল ঘোষের বাড়ি থেকে শিশু দু’টি মেলে। শুক্রবার শিশু দু’টিকে বিক্রি করা হয়েছিল। শিশু কেনার জন্য কৃষ্ণকান্ত এক লক্ষ টাকা দিয়েছিল। গত জুলাই মাসে ওই চাল ব্যবসায়ীর বছর আঠেরোর একমাত্র মেয়ে আত্মঘাতী হয়। রতনের শিশুকন্যা কেনার জন্য অমল দিয়েছিল ৮০ হাজার টাকা। সে পেশায় চাষি। তার কলেজ-পড়ুয়া ছেলে আড়াই বছর আগে মারা যান। কৃষ্ণকান্ত বলে, ‘‘আমার মেয়ে যে দিন মারা যায়, সে দিনই রতন ওর স্ত্রীকে নিয়ে বাড়ির সামনে দিয়ে যাচ্ছিল। পরে ও-ই এসে আমাকে মেয়ে বিক্রির প্রস্তাব দেয়।’’ অমল বলে, ‘‘আমি সন্তান হারিয়েছি। তাই ওর প্রস্তাবে না করতে পারিনি।’