অবশেষে বিধাননগরের মেয়র পদে শপথ নিলেন পুরনিগমের চেয়ারপার্সন কৃষ্ণা চক্রবর্তী।

আজবাংলা শনিবার শপথ শেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ জানান কৃষ্ণা চক্রবর্তী। তিনি বলেন, ''আমাকে এত বড় সুযোগ দেওয়ার জন্য আমি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ। বিধাননগরের মেয়রের দায়িত্ব নিয়ে আমি সকলের সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্যেই কাজ করব। কোনও ভেদাভেদ থাকবে না। উনি আমাদের মানুষের উন্নয়নের স্বার্থে কাজ করার শিক্ষা দিয়েছেন। সেই পথেই আমিও হাঁটব। জাতপাত, ধর্মের ভিত্তিতে কোনও ভাগ থাকবে না।'' এদিনের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের শীর্ষ নেতারা। ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, ব্রাত্য বসু, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, শশী পাঁজা, পূর্ণেন্দু বসু। অনুষ্ঠানে দেখা যায় রাজ্যসভার সাংসদ দোলা সেন এবং বিধায়ক তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক নির্মল ঘোষকেও। যদিও আজকের শপথগ্রহণে উপস্থিত ছিলেন না সব্যসাচী দত্ত। সূত্রের খবর, তিনি বিদেশে ছিলেন। গতকাল বাড়ি ফিরেছেন। তবে তাৎপর্যপূর্ণভাবে শপথগ্রহণে অনুপস্থিত ছিলেন সব্যসাচী অনুগামীরা। সব্যসাচী অনুগামী কাউকেই দেখা যায়নি আজ বিধাননগর পুরনিগমে। এই প্রসঙ্গে জিজ্ঞাসা করা হলে মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী বলেন, জেটল্যাগের কারণে হয়তো আসেননি সব্যসাচী। যদিও, সমালোচনার সুর শোনা যায় সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের গলায়। বলেন, "ওর  কাণ্ডকারখানার জন্যই আজকের এই অনুষ্ঠান।" একইরকমভাবে কটাক্ষ করেছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকও। তিনি বলেন, "সব‍্যসাচী ভুল করছেন। ওর শুভবুদ্ধির উদয় হোক। আশা করব, কৃষ্ণা চক্রবর্তীর বোর্ডে উনি ভাল করে কাজ করবেন।"