করোনা কেড়েছে চাকরি, ঠেলা গাড়ি চালিয়ে রাস্তায় সব্জি বিক্রি করছেন ফুটবল কোচ

করোনা কেড়েছে চাকরি, ঠেলা গাড়ি চালিয়ে রাস্তায় সব্জি বিক্রি করছেন ফুটবল কোচ
আজ বাংলাঃ   করোনা মহামারি, লকডাউন কেড়ে নিয়েছে বহু মানুষের চাকরি। দিন মজুরি থেকে কর্পোরেট জগত, সব জায়গাতেই এই একই ছবি। খেলার মাঠেও তার অন্যথা হয়নি। মাস তিন মাস হতে চলল খেলা হয়নি দেশে। আগামী দিনে কবে কী ম্যাচ হবে না হবে সে ব্যাপারেও নেই কোনও উত্তর। প্রথম সারির খেলোয়াড়দের বাদ দিলে অন্যান্য ক্রীড়াবিদদের সকলেই কম বেশি ভুগছেন একই সমস্যা। অনেকেরই পেট বা সংসার চলত এই খেলার মাঠ থেকে। মাঠ বন্ধ তাই উপায় বন্ধ। রোজগার নেই কোনও। ক্রমশ টান পড়েছে পকেটে। তাই বিকপ্ল বেছে নিতে বাধ্য হচ্ছেন অনেকে। খেলোয়াড়দের পাশাপাশি প্রশিক্ষকদের একই হাল। কেউ কেউ বেছে নিয়েছেন সব্জি বিক্রি কিংবা ফুড ডেলিভারি বয়ের চাকরি। প্রসাদ ভোঁসলে, শ্রীবাস্তব এবং সম্রাট রানা ... এই তিনজনই ভারতীয় ফুটবল সার্কিটে পরিচিত নাম। কিন্তু নাম থাকা স্বত্বেও তারা এখন কর্মহীন। বিক্লপ পেশায় যুক্ত। প্রসাদ ভোঁসলে এখন সবজি বিক্রি করেন। শ্রীবাস্তব বাড়িতে কেবাব বানিয়ে বিক্রি করেন। অপর জন সম্রাট রানা একটি রেস্তোরাঁর ডেলিভারি বিভাগে কর্মরত। কিন্তু এই করোনা এবং লকডাউনের আগে এনারা তিনজনেই কোনো না কোন জায়গায় চাকরি করতেন। কিন্তু এখন এই সব জায়গাতে তাদের জন্য আর কোন জায়গা নেই কার্যত। ভোঁসলে বলছিলেন, "আমি ফিজিক্যাল এডুকেশনে মাস্টার্স করেছি। তবে যখন পেট খালি থাকে তখন আর এসব কথা চিন্তা করিনা। এখন সবজি ভরে ঠেলাগাড়িতে নিয়ে রাস্তায় বিক্রি করি।"