সিবিআই এর গ্রেফতারের ভয়ে পলাতক মুখ্যমন্ত্রী ঘনিষ্ঠ প্রাক্তন পুলিস কমিশনার রাজীব কুমার

'দিদি'র দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে গ্রেফতারও হতে পারেন রাজীব কুমার
পলাতক মুখ্যমন্ত্রী ঘনিষ্ঠ প্রাক্তন পুলিস কমিশনার রাজীব কুমার

আজবাংলা হাইকোর্টের নির্দেশর পর গতকালই রাজীব কুমারের বাড়িতে নোটিস ঝোলায় সিবিআই। তাঁকে সিবিআই দফতরে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয় নোটিসে। সকাল ১০টায় হাজিরার কথা ছিল। কিন্তু এদিন নির্ধারিত সময়সীমার পর ৬ ঘণ্টা পার হয়ে গেলেও, এখনও গরহাজির রাজীব কুমার। হাজিরা এড়িয়ে কী করতে চান তিনি? কোথায় আছেন রাজীব কুমার? উত্তর খুঁজছেন গোয়েন্দারা। পার্কস্ট্রিট কোয়ার্টারেই কি গা ঢাকা দিয়ে আছেন? এমনও অনুমান করছেন তাঁরা। শুক্রবার হাইকোর্টে তাঁর গ্রেফতারি সংক্রান্ত ‘রক্ষাকবজ’ উঠে যায়। ওই দিনই বিকেলে তাঁর ৩৪ নম্বর পার্ক স্ট্রিটের ঠিকানায় ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৬০ ধারায় সিবিআই তাঁকে নোটিস পাঠানো হয়। সোমবার সুপ্রিম কোর্টে নালিশের আগে গ্রেফতারি এড়াতেই এই কৌশল নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ঘনিষ্ঠ প্রাক্তন পুলিস কমিশনার।সারদা দুর্নীতির বহু নথি তিনি হাপিস করে দিয়েছেন। লক্ষ লক্ষ মানুষের চোখের জলের কারণ রাজীব কুমার। তদন্তে সিবিআই-এর সঙ্গে সহযোগিতা করেননি তিনি। রাজীব কুমারকে তাই কেউ বাঁচাতে পারবে না। প্রসঙ্গত, গতকালই কলকাতা হাইকোর্টে মামলায় হেরে যান রাজীব কুমার। তাঁর উপর থেকে তুলে নেওয়া হয় রক্ষাকবচ। এরফলে রাজীব কুমারকে গ্রেফতারিতে আর কোনও বাধা থাকছে না সিবিআই-এর।পুলিশের একটি সূত্রে খবর, ৩৪ নম্বর পার্ক স্ট্রিটের যে আবাসনে রাজীব কুমার থাকেন, এ দিন সকাল সেখান থেকে তাঁকে বেরতে দেখা যায়নি। রাজ্য পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ সিআইডি-র এডিজি পদে রয়েছেন তিনি। কাজের প্রয়োজনে ভবানী ভবনে যেতে পারেন। কিন্তু এ দিন সেখানেও তিনি যাননি। জানা গিয়েছে, কয়েকদিন ছুটিতে রয়েছেন তিনি। অন্য কোথাও তাঁর যাওয়ার সম্ভাবনাও খুবই কম।এখন সিবিআই-এর খাতায় রাজীব কুমারকে ‘ফেরার’ হিসেবে দেখানো হয়েছে বলে সূত্রে খবর। পাশাপাশি ইতিমধ্যেই শহরে এসে পৌঁছেছেন যুগ্ম অধিকর্তা সাই মনোহর। রাজীব কুমারের গ্রেফতারিতে আঁটসাঁট বেঁধেই নামছে সিবিআই।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!