লক্ষ কি পঞ্চায়েত নির্বাচনে সন্ত্রাস ছড়ানো? প্রচুর তাজা বোমা উদ্ধার মালদার কালিয়াচকে

Fresh bombs rescuers Kaliachak
মালদার কালিয়াচক
আজবাংলা মালদা : লক্ষ কি পঞ্চায়েত নির্বাচনে সন্ত্রাস ছড়ানো ? পঞ্চায়েত নির্বাচনের ভবিষৎ যখন সিঙ্গাল বেঞ্চে, ঠিক সেই সময়ই প্রচুর পরিমানে তাজা বোমা উদ্ধার মালদার কালিয়াচকে।আর বোমা উদ্ধারের ঘটনায় জোর চাঞ্চল্য ছড়ালো জেলা জুড়ে।কালিয়াচক থানার সুলতানগঞ্জ এলাকায় উদ্ধার হয়েছে তাজা বোমা।স্থানীয় বাসিন্দারা একটি পরিত্যক্ত ড্রামে এই বোমা গুলি দেখতে পেয়ে খবর দেয় কালিয়াচক থানায়।খবর পেয়ে পুলিশ এবং বোমা স্কুয়ার্ট দল এলাকায় পৌছায়।বোমা গুলি উদ্ধার করে নিষ্ক্রিয় করে সিআইডি বোমা স্কুয়ার্ট।তবে কি উদ্দেশ্যে কে বা কারা এই এলাকায় বোমা মজুত করে রেখেছিল তা তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। পঞ্চায়েত নির্বাচনের ঘন্টা বাজার পরেই মালদা জেলা বিভিন্ন এলাকায় সামনে এসেছে গোষ্ঠীদ্বন্দ ও সন্ত্রাসের চিত্র।নির্বাচনে সন্ত্রাস চালানোর জন্যই এই বোমা মজুত করে রেখে ছিল দুষ্কৃতীরা এমনটাই মনে করছে সুলতানগঞ্জের বাসিন্দারা। খুন , দুষ্কৃতী দৌরাত্ম এ কোনো নতুন ঘটনা নয় কালিয়াচকে।দুস্কৃতিমূলক কাজে দেশের মানচিত্রে এক অন্য দৃষ্টি ধারণ করেছে কালিয়াচক।তবে পঞ্চায়েত নির্বাচনে দুষ্কৃতীদের মুক্তাঞ্চল হয়ে উঠবে গোটা কালিয়াচক এলাকা এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। বুধবার বিকেলে সুলতানগঞ্জ এলাকার একটি পেট্রোল পাম্পের পিছনে স্থানীয় বাসিন্দা লক্ষ করেন একটি ড্রামে মজুত করে রাখা রয়েছে প্রায় দশ থেকে পনেরটা তাজা বোমা। তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় কালিয়াচক থানায়।ঘটনা স্থলে পৌছায় কালিয়াচক থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী।ঘটনার খবর পেয়ে এলাকায় ছুটে যায় সিআইডি বোম স্কুয়ার্ট দল।বুধবার বিকেলেই বোমা গুলি উদ্ধার করে নিষ্ক্রিয় করে বোমা ডিস্পোযাল টিম।পঞ্চায়েত নির্বাচনে এলাকায় সন্ত্রাস চালানোর জন্যই এই বোমা মজুত করা হয়েছিল বলে অভিযোগ বিরোধীদের।তবে কে বা কারা কি উদ্দেশ্যে এই বোমা মজুত করে রেখেছিল তা তদন্ত শুরু করেছে কালিয়াচক থানার পুলিশ।ঘটনায় এলাকায় দেখা দিয়েছে আতঙ্কের আবহ।