ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি পানশালায় বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত হয়েছেন ১১ জন।

Gunmen shot dead 11 people in a pond in California
পানশালায় বন্দুক হামলায় ১২ জন নিহত

আজবাংলা  ক্যালিফোর্নিয়ার থাউজেন্ড ওকস এলাকার বর্ডার লাইন বার অ্যান্ড গ্রিলে গুলি চালায় বন্দুকধারী। স্থানীয় শেরিফ জিওফ ডিন জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। নিহতদের মধ্যে বন্দুকধারীও আছেন। লস এঞ্জেলস থেকে ৫০ কিলোমিটার দূরে দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার ভেন্চুরা কাউন্ডি শেরিফে (প্রশাসনিক এলাকা) এ ঘটনা ঘটেছে।  নিহতের মধ্যে বেশিরভাগই শিক্ষার্থী বলে ধারণা করা হচ্ছে। ভেন্চুরা কাউন্ডি শেরিফের সার্জেন্ট এরিক বুচাও বলেন, একজন বন্দুকধারী সেখানে হামলা চালায়। হামলাকারীও ঘনটাস্থলে নিহত হয়েছে। শেরিফ অফিসার ক্যাপ্টেইন গারো কুরেদজিয়ান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, শেরিফের ডেপুটি কর্মকর্তাও এ ঘটনায় আহত হয়েছেন। তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ঘটনার পরপরই পুলিশ লসএঞ্জেলস টাইমসকে জানিয়েছিল, বন্দুক হামলায় অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। সরেজমিন পরিদর্শন করে আল-জাজিরার সাংবাদিক রব রেনল্ড জানিয়েছেন, হামলার সময় বারের মধ্যে বহু শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিল। হামলাকারী জোর করে সেখানে ঢুকে গুলি চালায়। তিনি বলেন, অস্ত্রধারী বারের মধ্যে ঢুকেই কয়েক ছোট বোমা ছুঁড়ে দেয়। এরপর স্বয়ংক্রিয় বন্দুক দিয়ে গুলি চালাতে শুরু করে।পুলিশ বলছে, হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। প্রথম গুলি চলার পর পানশালায় উপস্থিত মানুষের মধ্যে হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সন্দেহভাজন বন্দুকধারী কয়েক ডজন গুলি ছুড়েছে। গোলাগুলির সময় পানশালায় থাকা অনেকেই শৌচাগারে আশ্রয় নেয়। পুলিশ সদস্যরা চেয়ার দিয়ে জানালা ভেঙে পানশালায় ঢোকেন। থাউজেন্ড ওকস শহরের মেয়র অ্যান্ডি ফক্সের দাবি, তাঁর শহর যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপদ শহরগুলোর মধ্যে অন্যতম। তিনি বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা বিশ্বের যে কোনো জায়গায় যে কোনো সময় ঘটতে পারে।