নিয়ম না মেনে স্কুল পরিচালনার অভিযোগে বদলি করা হলো প্রধান শিক্ষককে

aajbangla
aajbangla
head teacher is transferred
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা

আজবাংলা মালদা : বিদ্যালয়ে পড়ুয়া ভর্তিতে দুর্নীতি,আর্থিক বেনিয়ম,সরকারী নিয়ম না মেনে স্কুল পরিচালনার অভিযোগে বদলি করা হলো প্রধান শিক্ষক।মালদা শহরের অক্রমনি জি এস এফ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনোজ মিত্র’কে। বিদ্যালয় পরিচালনা সুষ্ঠ ভাবে হবে বলে আশাবাদী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তর। দীর্ঘদিন ধরেই এই প্রধান শিক্ষক এর বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে ছাত্র ভর্তি,নিয়ম নির্দেশিকা না মেনে বিদ্যালয় পরিচালনা করা,নিজের খেয়াল খুশি মতো বিদ্যালয় পরিচালনা সহ একাধিক অভিযোগ জমা হচ্ছিলো। অভিযোগ,বিভিন্ন সময়ে রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে পার পেয়ে যাচ্ছিলো এই শিক্ষক।শুক্রবার এই সব অভিযোগ খতিয়ে দেখার পর রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের অনুমোদন আসে মালদা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ সভাপতির কাছে।শনিবার প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ সভাপতি এই অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে বদলির নির্দেশ দেন।এই নির্দেশে জেলা শিক্ষা মহল এবং অভিভাবকদের মধ্যে খুশির হওয়া।সংসদ সভাপতির দুর্নীতির বিরুদ্ধে এহেন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন জেলার ডান বাম সহ সমস্ত শিক্ষা মহল। বিদ্যালয়ের সহ শিক্ষক রাজু সাহা জানান,”বিভিন্ন অভিভাবকেরা দীর্ঘদিন ধরেই এই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাচ্ছিল।এই প্রধান সিকঝক নানান রকম দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত ছিলো।তাই বদলির সিদ্ধান্তে সকলেই খুশি”।একই সুরে অভিভাবকদের গলায়।তারা জানান,”টাকা নিয়ে ছাত্র ভর্তি,আর্থিক দুর্নীতি,দুর্ব্যবহার এই প্রধান শিক্ষক করতো।তাই আজ তার বদলির নির্দেশে খুশির হওয়া অভিভাবকদের মধ্যে। সম্প্রীতি মালদা শহরের বেশ কিছু  প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক/শিক্ষিকাদের বিরুদ্ধে অর্থের বিনিময়ে ছাত্র ছাত্রী ভর্তি,মিড-ডে-মিলের দুর্নীতি,পোশাক বিনিময়ে অর্থ তছরূপ,বিভিন্ন আছিলাই সরকারি নিয়ম না মেনে অভিভাবকদের কাছ থেকে টাকা আদায়ের অভিযোগ পর্ষদ অফিসে জমা পড়েছে।সব অভিযোগ খতিয়ে দেখে একে একে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানান মালদা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান আশিস কুন্ডু।এপ্রসঙ্গে তিনি জানান,”রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের নির্দেশেই এই বদলি।মনোজ বাবুকে আরাইডাঙ্গা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নির্দেশ রয়েছে।এই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ থাকায় রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের এই সিদ্ধান্ত।