মাত্র ছয় টাকায় এক কোটি টাকার লটারি বদলে দিল চা-শ্রমিকের জীবন

আজবাংলা    আলিপুরদুয়ার   আচমকাই কল্পতরু উৎসবে মেতে উঠেছে আলিপুরদুয়ারের কালচিনির সাঁতালি চা-বাগানের থমাস শ্রমিক লাইনের বাসিন্দা পাইকাস বাক্সলা।  মঙ্গলবার বিকেলে পুরোনো হাসিমারার বাজার থেকে মাত্র ছয় টাকার বিনিময়ে নিজের ভাগ্য যাচাই করতে লটারির টিকিট কেটেছিলেন পাইকাস বাক্সলা।

রাত আটটার পরই ঘুরে যায় ওই সাধারণ চা-শ্রমিকের ভাগ্যের চাকা। টিকিট মিলিয়ে জানতে পারেন, কপালে জুটেছে এক কোটি টাকার ঝাঁপি। কয়েক ঘণ্টা আগেও তাঁকে জীবনযুদ্ধের প্রতিটা পলে লড়াই করার কথা ভাবতে হত। তাই প্রাথমিক অবস্থায় নিজের চোখকে যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না পাইকাস। ঘোর কাটতে গড়িয়ে যায় কয়েক ঘণ্টা। দিনান্তে মাত্র ১৭০ টাকা রোজগারের মানুষটা কেমন যেন বিহ্বল হয়ে পড়েন। আচমকাই সব কিছু বদলে যাওয়াতে কয়েক ঘণ্টার জন্য চুপ মেরে যান ওই চা-শ্রমিক। বিষয়টি কাউকে না জানিয়ে চুপিসারে ফিরে আসেন নিজের ঘরে।

মঙ্গলবার তখন রাত ১০টা। নিজের জীবনের চাকা ঘুরে যাওয়ার রূপকথা খুলে বলেন সহধর্মিণী সরোজিনী বাক্সলাকে। দুরুদুরু বুকে রাত জাগেন আদিবাসী দম্পতি। মনে একটাই ভয়, পাছে গুপ্তধনের খোঁজ পেয়ে রাতের অন্ধকারে চড়াও হয় ডাকাত দল। অবশেষে শীতের লম্বা রাত চোখ খুলে কাটিয়ে কয়েক জন নিকটাত্মীয়কে নিয়ে সটান হাজির হন জয়গাঁ থানার হাসিমারা পুলিশ ফাঁড়িতে। নিজের ও পরিবারের নিরাপত্তার দাবি জানিয়ে দরবার করেন পুলিশের কাছে। ঘটনা জানা মাত্রই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন পুলিশ কর্তারা।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!