আগরতলায় চতুর্দশ দেবতা মন্দির প্রাঙ্গণে খার্চি পূজা ও মেলা উদ্বোধনে মুখ্যমন্ত্রী ।

আগরতলায় চতুর্দশ দেবতা মন্দির প্রাঙ্গণে খার্চি পূজা
????????????????????????????????????

আজয় মণ্ডল আজবাংলা আগরতলা বুধবার পুরাতন আগরতলার চতুর্দশ দেবতা মন্দির প্রাঙ্গণে ঐতিহ্যবাহী খার্চি পূজা উত্‍সব ও মেলার উদ্বোধন করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব। অনুষ্ঠানে বক্তব্য পেশ করতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব বলেন, এই মেলাকে সাধারণ একটি মেলা ভাবলে ভুল হবে, কারণ এই মেলা প্রতি বছর সাতদিনের জন্য অনুষ্ঠিত হলেও সমাজ এবং দেশের কাছে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বার্তা দিয়ে যায়। ত্রিপুরার বিভিন্ন প্রান্তের পাশাপাশি, অসম, পশ্চিমবঙ্গ, এমন-কি প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশ থেকেও অসংখ্য মানুষ আসেন। এ-বছর এই সকল এলাকা থেকে বহু শিল্পী আসছেন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার জন্য। তিনি আরও বলেন, গত বছর মেলাকে ঘিরে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। এতে বোঝা যাচ্ছে, আমাদের সমাজ ভালোর দিকে এগিয়ে যচ্ছে, পরিবর্তন হচ্ছে। আর এটা হচ্ছে ২০১৮ সালের ৯ মার্চের পর থেকে। সমাজ পরিবর্তনে মেলার একটা বড় ভূমিকা রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।চতুর্দশ দেবতা মন্দিরের পাশের কৃষ্ণমালা মুক্তমঞ্চে উত্‍সবের আয়োজন করা হয়। প্রদীপ ও বিশাল আকারের ধূপকাঠি প্রজ্বলনের মধ্য দিয়ে উত্‍সবের সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রতি বছরের মতো এ-বছরও মেলা উপলক্ষ্যে স্মরণিকার আনুষ্ঠানিক উন্মোচন করেন উপস্থিত অতিথিরা। পাশাপাশি এ-বছর মেলার একটি ওয়েবসাইটেরও উদ্বোধন করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।এই অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরা সরকারের রাজস্ব ও মত্‍স্য দফতরের মন্ত্রী এনসি দেববর্মা, আগরতলা পুর নিগমের মেয়র ড. প্রফুল্লজিত্‍ সিনহা, বিধায়ক তথা খার্চি উত্‍সব কমিটির দুই বিধায়ক রতন চক্রবর্তী এবং সুশান্ত চৌধুরী-সহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর মুখ্যমন্ত্রী-সহ অন্যান্য অতিথিরা সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন। সবশেষে চতুর্দশ দেবতা মন্দিরে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লবকুমার দেব পূজা দেন   

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!