ভারত বাংলাদেশ ও নেপালের যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করতে নেপালে পৌঁছাল পরীক্ষা মূল বাস

Nepal to improve the communication system of India, Bangladesh

বিশ্বজিৎ সরকার,আজবাংলা দার্জিলিংঃ ভারত বাংলাদেশ ও নেপালের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করার লক্ষ্যে চালু হতে চলেছে বাস পরিষেবা। ঢাকা থেকে ৫২জনের প্রতিনিধি দল নিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে ফুলবাডি সীমান্তে এসে পৌছায় দুটি পরীক্ষামূলী বাস। সোমবার বাসটি ঢাকা থেকে ভারতের ১১জন,বাংলাদেশের ৩৫জন ও নেপালের ৬জন যাত্রী নিযে রওনা হয় ফুলবাডির উদ্দ্যেশে। এছাড়াও বাংলাদেশের রাজস্ব বোর্ড ,যোগাযোগ,বিদেশ,স্বরষ্ট্র প্রতিনিধিরাও বাসে এসেছেন। মঙ্গলবার ফুলবাড়িতি এসে পৌছালে সেখানে এসএসবি-এর পক্ষ থেকে সংবর্ধনা জানানো হয়। এরপর বাস দুটি মঙ্গলবার শিলিগুড়ির উওরকন্যাতে থাকে। এবং এদিন সকালে নেপালের কাঠমাণ্ডুর উদ্দেশ্য পানিট্যাঙ্কি এসে পৌছায়। এরপর সেখান এসএসবি পক্ষ থেকে সংবর্ধনা জানানো হয়। এদিন সংবর্ধনা দিতে উপস্থিত ছিলেন এসএসবি ৪১ নং বেটেলিয়ানের আইজি এস বন্দ্যোপাধ্যায়,ডিআইজি অসিত কুমার দাস,মেডিক্যাল কমান্ডেন্ট রিঙ্কু দে ও ৪১ নং এসএসবি কমান্ডেন্ট হরিরাম ভারত। এরপর পানিট্যাঙ্কি থেকে রাওনা দেন নেপালে। এরপর বাস দুটি নেপালে প্রবেশ করতেই বাসের যাত্রীদের খাদা ও ফুল দিয়ে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সংবর্ধনা দিতে উপস্থিত ছিলেন মেচী করপোরেশন চেয়ারম্যান বিমল আচারি,নেপাল পুলিশের ডিএসপি টঙ্কো প্রসাদ,নেপাল চেম্বার অফ কমার্শিয়ালের সদস্য কেশব পান্ডে সহ নেপালের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। উল্লেখ্য বছর দুযেক আগে ভারত-বাংলাদেশ যাতায়াতের লক্ষ্যেখুলে দেওয়া হযেছিল ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট। এরপর ফের একবার বন্ধুতের হাত বাড়িয়ে দিল তিন দেশ।