সঙ্কটের সময়েও ভারত আমাদের সামনে দেবদূত হয়ে প্রকট হয়েছে, কৃতজ্ঞতা স্বীকার মালদ্বীপের

সঙ্কটের সময়েও ভারত আমাদের সামনে দেবদূত হয়ে প্রকট হয়েছে, কৃতজ্ঞতা স্বীকার মালদ্বীপের

আজ বাংলা: ফের একবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করল দ্বীপ রাষ্ট্র মালদ্বীপ। জানা গিয়েছে, মালদ্বীপের বিদেশ মন্ত্রী আবদুল্লা শাহিদ সংযুক্ত রাষ্ট্রের মহাসভায় দেওয়া নিজের ভাষণে ভারতের (তরফ থেকে করোনা মহামারীর মধ্যে দেওয়া ২৫০ মিলিয়ন ডলারের সাহাজ্যের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। 


মালদ্বীপের বিদেশ মন্ত্রী বলেন, ‘এই সঙ্কটের সময়েও আপনাদের সাহাজ্যের জন্য ধন্যবাদ জানাই। আপনারা এই সঙ্কটের সময়েও উদার মনোভাব দেখিয়ে শারীরিক আর প্রযুক্তিগত সহায়তা করেছেন।”

মালদ্বীপের বিদেশ মন্ত্রী ভারতকে ধন্যবাদ জানিয়ে আরও বলেছেন, ‘এই সঙ্কটের সময়েও ভারত আমাদের সামনে দেবদূত হয়ে প্রকট হয়েছে। এই সঙ্কটের সময়ে ভারত আমাদের ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের সহায়তা করেছে, যেটা সবথেকে বড় আর্থিক মদত ছিল।”

প্রসঙ্গত, যতদিন এগোচ্ছে ভারত ও এই দ্বীপ রাষ্ট্রের সম্পর্কের উন্নতি হচ্ছে। ভারতের 'নেবারহুড ফার্স্ট' নীতিকে সামনে রেখে, ভারত ও মালদ্বীপের মধ্যে প্রথমবারের মতো কার্গো ফেরি পরিষেবা ২ September সেপ্টেম্বর দু'দেশের সম্পর্কের এক নতুন অধ্যায় শুরু করে। শিপিং কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়ার কার্গো জাহাজ এমসিপি লিনজ উত্তর মালদ্বীপের শহর কুলহুদুফুশিতে পৌঁছেছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলিহ নতুন সূচনাটি উদযাপন করে বলেছেন যে এটি উভয় জাতির মধ্যে চলমান সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ককে আরও বাড়িয়ে তুলবে। এটিকে একটি "স্বপ্ন বাস্তব হওয়ার" কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেছিলেন যে এটি তাদের বন্ধুত্বকে আরও জোরদার করতে থাকবে।

প্রধানমন্ত্রী মোদী টুইটারে নেমে লিখেছিলেন, "রাষ্ট্রপতি @ বিসোলিহ এটি সত্যিই একটি আনন্দের দিন! ভারত এবং মালদ্বীপের মধ্যে সরাসরি ফেরি সার্ভিসের আমাদের স্বপ্ন এখন বাস্তব। আমার দ্বিধা নেই যে এটি দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যকে উত্সাহিত করবে এবং আমাদের অর্থনীতিকে উত্সাহ দেবে।

মালদ্বীপ-ভারত বন্ধুত্ব আরও জোরদার করতে থাকবে। ”অন্যদিকে রাষ্ট্রপতি সোলিহ ভারত সরকার এই উদ্যোগকে দেশগুলির সম্প্রদায়ের আরও সমৃদ্ধি বয়ে আনবে বলে আশাবাদ জানিয়েছিলেন