বৌমার সম্মান বাঁচাতে গিয়ে ধারালো অস্ত্রের কোপে ক্ষতবিক্ষত শ্বশুর

আজবাংলা    মালদা   বৌমার সম্মান বাঁচাতে গিয়ে ধারালো অস্ত্রের কোপে ক্ষতবিক্ষত শ্বশুর । গুরুতর জখম অবস্থায় মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে মালদা থানার পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে মালদা থানার মঙ্গলবাড়ি এলাকায়। শুরু হয়েছে ঘটনার তদন্ত। আহত অবস্থায় বৃদ্ধকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও অবস্থা সঙ্কটজনক হওযায় তাঁকে কলকাতায় পাঠানো হয়েছে।ধারালো অস্ত্র দিয়ে বৃদ্ধ ও তার সঙ্গীর উপর হামলা করে অভিযুক্ত রঞ্জন ও তার দলবল।জানা গিয়েছে আহতর নাম রাম পাল(৫৭)। বাড়ি মালদা থানার পাল পাড়া এলাকায়। অভিযুক্তর নাম রঞ্জন দাস। সম্প্রতি রাম পালের ভাস্তার স্ত্রীকে নানা অচ্ছিলায় কটুক্তি শুরু করে। ঘটনার প্রতিবাদ করায় পরিবারকে হুমকি দিতে শুরু করে অভিযুক্ত রঞ্জন ও তার পরিবারের সদস্যরা।গতকাল রাতে পুরাতন মালদার পুরসভার পুরপতি কার্তিক ঘোষকে ঘটনার কথা জানায় রামপাল যান বৃদ্ধ সঙ্গে এক সঙ্গীকে নিয়ে। এরপরই রঞ্জন দাস ও দলবল  পথেই চড়াও হয় বৃদ্ধের উপর। অভিযোগপত্র  তুলে নেওয়ারও হুমকী দেওয়া হয় বৃদ্ধকে। রক্তাক্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে বৃদ্ধ ও তার সঙ্গী। চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসতেই রঞ্জনও তার দলবল চম্পট দেয়। স্থানীয়রা আহত বৃদ্ধ রাম পাল ও তার সঙ্গীকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাাস্থলে আসে মালদা থানার পুলিস। অভিযুক্ত রঞ্জন দাসকে গ্রেফতার করে  তদন্ত শুরু করেছে মালদা থানার পুলিস