মুসলিম ওসির প্রতিষ্ঠিত কালী মন্দির এখন দুই সম্প্রদায়ের মিলন ক্ষেত্র।

Kali Mandir established by Muslim OC is now the union of the two
কালী মন্দির এখন দুই সম্প্রদায়ে

আজবাংলা পুরুলিয়াঃ পুরুলিয়া জেলার পুঞ্চায় মুসলিম ওসির প্রতিষ্ঠিত কালী মন্দির “চরণ পাহাড়ি” এখন দুই সম্প্রদায়ের মিলন ক্ষেত্র।জানা যায় তত্‍কালীন পুঞ্চা থানার ওসি জিটি লতিফ এক রাত্রে মা কালীর স্বপ্নাদেশ পান।পরদিন সকালে প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে পাহাড়ির চূড়ায় কালো পাথরের ওপর দেখতে পান মায়ের পায়ের চিহ্ন।তার পরেই পুজোর আয়োজনের জন্য ডেকে পাঠানো হয় আশপাশের ২০টি গ্রামের মানুষকে।সকলের উদ্যোগে পাহাড়ের চূড়ায় মিলিটারি ক্যাম্পে শুরু হয় চরণ পাহাড়ি কালীপুজো। প্রথমে ছোট মাটির কুঠির বানিয়ে পুজো শুরু হলেও পরে ১৩৫৭ সালে মুসলিম ওসির নেতৃত্বে সব সম্প্রদায়ের মানুষের সহযোগিতায় পাহাড়ের চূড়ায় মন্দির তৈরি হয়। পরে ১৪০৩ সালে মন্দিরটির সংস্কার করা হয়।তত্‍কালীন ওসি সমরকুমার ব্যানার্জি মন্দিরটির সংস্কার করেন।দীর্ঘ ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে চলে আসা এখন এই পুজো হিন্দু এবং মুসলমানের মিলন ক্ষেত্র হিসেবেই সকলের কাছে পরিচিত।