কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদিত, নদীয়া জেলায় নবতম চিকিৎসা সহযোগী কর্মমুখী বিভিন্ন কোর্স

মলয় দে  আজবাংলা   কল্যাণী  -চিকিৎসা সংক্রান্ত যে কোন পেশাই যে জীবিকার শিরোমণিতে এ কথা কে না জানে?কিন্তু আমাদের অনেকেরই ভ্রান্ত ধারণা বিজ্ঞান বিভাগে অনেক নাম্বার না থাকলে এই সমস্ত কোর্স করা সম্ভব নয়। অনেকে আবার জানেন না এ ধরনের কোর্স কোথায় করানো হয়।   রাজ্যের কয়েকটি হাতেগোনা এ ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে নবতম সংযোজন Susrijo Institute of Paramedical Technology and Optomestery(SIPTO) । নদীয়া জেলার কৃষ্ণনগর শহরে কোম্পানি বাগান এর নিকট, হর্টিকালচার অফিস এর কাছেই পঃবঃ সরকারের WEBEL IT Park এ গড়ে ওঠা এই প্যারামেডিকেল কলেজ টি কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদিত ও পশ্চিমবঙ্গ সরকার দ্বারা স্বীকৃত। বারোটি কর্মমুখী অতি আবশ্যকীয় চিকিৎসা সম্পর্কিত ডিপ্লোমা কোর্স স্বল্প ব্যয়ে প্রয়োজনমতো ব্যাংক লোনের ও স্কলারশিপের(বিশেষ ক্ষেত্রে) সুবিধায় করার সুযোগ রয়েছে।আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষণ পদ্ধতির মাধ্যমে ও অভিজ্ঞ চিকিৎসকমন্ডলীর দ্বারা হাতে-কলমে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রয়েছে। এই সকল ডিপ্লোমা কোর্সের মেয়াদান্তে প্রাপ্ত শংসাপত্র টি কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক প্রদত্ত হবে, যেটি পশ্চিমবঙ্গ সরকার অনুমোদিত।কর্মমুখী এই কোর্স গুলি সম্পন্ন করার পর সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন হাসপাতাল, নার্সিংহোম, ডায়াগনস্টিক সেন্টার, প্যাথলজিক্যাল ল্যাব সহ বিভিন্ন সংস্থায় থাকছে প্রভূত কাজের সুযোগ। এছাড়াও ব্যক্তিগত উদ্যোগে অথবা সমবায় সমিতি, self help group, এর মাধ্যমে স্বাধীন ব্যবসায় সাফল্যের সুযোগ রয়েছে। উল্লেখ্য যে দীর্ঘদিন ধরে শুধুমাত্র অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে কাজ করে আসা কর্মীদের (যাদের শংসাপত্র নেই) তাদের জন্য এটি একটি সুবর্ণ সুযোগ।