কলকাতা শহরের রাস্তায় চপারের কোপে খুন এক ব্যক্তি

কলকাতা শহরের রাস্তায় চপারের কোপে খুন এক ব্যক্তি
মৃতের নাম ইশামুল হক ওরফে চুন্নু মিঞা (৪৮)।

আজবাংলা  শনিবার দুপুর তিনটে নাগাদ বাড়ি ফিরছিলেন মেটিয়াবুরুজের শানপুকুর লেনের বাসিন্দা মহম্মদ ইসামূল হক ওরফে চুন্না। ত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, শহরের রাস্তা রাস্তার পাশেই একটি বাচ্চা ছেলেকে মারধর করছিল কালাম নামে এক যুবক। একটি বাচ্চাকে এভাবে মারধরের প্রতিবাদ করেছিলেন চুন্না। আর তাতেই অগ্নিশর্মা হয়ে ওঠে কালাম। ঘটনাস্থলের কাছেই কালামের দাদার মাংসের দোকান। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, দাদার দোকান থেকে একটি চপার এনে চু্ন্নাকে এলোপাথারি কোপাতে শুরু করে কালাম। রক্তাক্ত অবস্থায় ওই ব্যক্তি যখন মাটিতে লুটিয়ে পড়েন, তখন চপার দিয়ে তাঁর নলি কেটে দেয় কালাম। চুন্নার শরীর থেকে মাথার অনেকটা অংশ আলাদা হয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই মারা যান মহম্মদ ইসামূল হক ওরফে চুন্না।  নৃশংস হত্যাকাণ্ড দেখে হতবাক হয়ে যান স্থানীয় বাসিন্দারা। চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। শেষপর্যন্ত অভিযুক্ত কালামকে ধরে ফেলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁদের অভিযোগ, এলাকায় দীর্ঘদিন ধরেই মস্তানি করত কালাম। কারণে-অকারণে লোকজনের উপর অত্যাচার চালাত সে। ওই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে রাজাবাগান থানার পুলিশ।