কলকাতায় সপ্তমীতে বাড়ি ভেঙে মৃত ১

কলকাতায় সপ্তমীতে বাড়ি ভেঙে মৃত ১

 ফের কলকাতা বাড়ির একাংশ ভেঙে পড়ার ঘটনা ঘটল। এবার নারকেলডাঙার ক্যানাল ইস্ট রোডে ঘটেছে দুর্ঘটনা। রক্ষণাবেক্ষণের কাজ চলাকালীন ভেঙে পড়ে বাড়ির ছাদের একাংশ। ঘটনায় এক যুবকের মৃত্যুর খবর মিলেছে। আহত অন্তত দুই। বাড়িটি আদতে একটি কারখানার অন্দরে ছিল বলে জানা গিয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, বহুদিন ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়েছিল কারখানাটি।

সম্প্রতি হয়তো তার মালিকানা হস্তান্তর হয়। এরপরই রক্ষণাবেক্ষণের কাজ শুরু হয়। কারখানার অন্দরে থাকা বাড়ির কিছু অংশ ভেঙে ফেলা হচ্ছিল। সেই কাজের জন্যই কিছু শ্রমিককে নিযুক্ত করা হয়। নিহত যুবকও বাড়ি ভাঙার কাজ করতে এসেছিলেন বলেই খবর।  সপ্তমীর দিনও কারখানার অন্দরের বাড়ি ভাঙার কাজ চলছিল। আচমকা প্রচণ্ড আওয়াজে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন স্থানীয় বাসিন্দারা।

ছুটে এসে দেখেন, বাড়ির ছাদের একাংশ ভেঙে পড়েছে, আর তার নিচে তিনজন শ্রমিক আটকে রয়েছেন। স্থানীয়রাই প্রথমে আটকে পড়া শ্রমিকদের উদ্ধারের কাজে হাত লাগান। আহতদের NRS হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে এক শ্রমিককে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিত্‍সক। মৃত শ্রমিকের নাম আলাউদ্দিন গাজী বলেই জানা গিয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে নারকেল ডাঙা থানার পুলিশ।

তবে শোনা যায়, দুর্ঘটনার পরই কারখানার দরজায় তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছিল। তাই বেশ কিছুক্ষণ কারখানার ভিতরে পুলিশ ঢুকতে পারেনি। পরে তদন্তের কাজ শুরু করা হয়। প্রাথমিকভাবে আশেপাশের বাসিন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। উল্লেখ্য, গত সেপ্টেম্বরে ৯ নম্বর আহিরীটোলা লেনে একটি দোতলা বাড়ি ভেঙে পড়ে। ধ্বংসস্তুপে চাপা পড়ে যান এক শিশু-সহ চারজন। পরবর্তীতে ওই শিশু ও তার ঠাকুমার মৃত্যু হয়। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই বড়বাজারে আবার বাড়ি ভেঙে পড়ে। সেই ঘটনাতেও একজন প্রাণ হারান।