জম্মু ও কাশ্মীরে এনকাউন্টারে খতম কুখ্যাত লস্কর-ই-তৈবার ৬ জন সন্ত্রাসবাদী।

Six terrorists killed in the infamous Lashkar-e-Taiba terror attack in Jammu and Kashmir
কুখ্যাত লস্কর কম্যান্ডার-সহ ৬ জন সন্ত্রাসবাদী

আজবাংলা  অবশেষে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে খতম হয় ৬ জন সন্ত্রাসবাদী, এনকাউন্টারে ৬ জন সন্ত্রাসবাদী খতম হওয়ার পরও, ওই এলাকায় চিরুনি তল্লাশি চালানো হচ্ছে। আর কোনও সন্ত্রাসবাদী লুকিয়ে রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। গোটা এলাকায় আপাতত ইন্টারনেট পরিষেবাও বন্ধ রাখা হচ্ছে। রাইজিং কাশ্মীর পত্রিকার সম্পাদক সুজাত বুখারি খুনে জড়িত ওয়ান্টেড জঙ্গি নিহত লস্কর-ই-তৈবা (এলইটি) কম্যান্ডার (এলইটি) আজাদ আহমেদ মালিক। গুলির লড়াই শেষে এনকাউন্টারস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে আগ্নেয়াস্ত্র এবং গোলাবারুদ। কাশ্মীর পুলিশ জানিয়েছে, বুখারি হত্যার পর সামনে আসে চার জঙ্গির নাম। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে তাদের ছবিও প্রকাশ্যে আনা হয়। তাদেরই একজন ছিল মালিক। বিশ্বস্ত সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোররাত থেকেই শালগুন্দ গ্রামে তল্লাশি অভিযান চালায় সেনাবাহিনীর ৩ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস এবং অনন্তনাগ স্পেশ্যাল অপারেশন গ্রুপ (এসওজি)। তল্লাশি অভিযান চলাকালীন নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানদের লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে থাকে লুকিয়ে থাকা সন্ত্রাসবাদীরা। পাল্টা গুলি চালান নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানরাও। দু’পক্ষের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ গুলি বিনিময় চলে। অবশেষে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে খতম হয় ৬ জন সন্ত্রাসবাদী। অনন্তনাগের বিজবেহারা এলাকার শালগুন্দ গ্রামের ঘটনা। এনকাউন্টারে খতম ৬ জন সন্ত্রাসবাদীর নাম হল, আজাদ আহমেদ মালিক ওরফে দাদা, উনাইস শফি, শাহিদ বশির, বসিত ইশতিয়াক, আকিব নাজার এবং ফিরদৌস নাজার। জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ সূত্রের খবর, সাংবাদিক সুজাত বুখারি খুনের মামলায় বহুদিন ধরেই ওয়ান্টেড ছিল নিহত লস্কর-ই-তৈবা (এলইটি) কম্যান্ডার (এলইটি) আজাদ আহমেদ মালিক। গুলির লড়াই শেষে এনকাউন্টারস্থল থেকে উদ্ধার হয়েছে আগ্নেয়াস্ত্র এবং গোলাবারুদ।