জানুন পৃথিবীর সবচেয়ে গরিব রাষ্ট্রপতির সরলপূর্ণ মানুষটার ব্যাপারে

জানুন পৃথিবীর সবচেয়ে গরিব রাষ্ট্রপতির সরলপূর্ণ মানুষটার ব্যাপারে
আজ বাংলা      এই সহজ সরল মানুষটির নাম হচ্ছে জোস মুজিকা। ইনি ছিলেন উরুগুয়ের রাষ্ট্রপতি। পৃথিবীর সব চেয়ে গরিব রাষ্ট্রপতি হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন কারণ তাঁর  উপার্জনের ৯০ % দানশীলতা করে নিজে একটা জীর্ণ খামারে বসবাস করতেন। এই মুগ্ধকারী মানুষটি নিজের জীবনধারা ক্ষমতার সাথে পাল্টাতে চাননি। দেশের প্রধান ব্যক্তি হিসেবে যেই সুখ, বিলাসিতা এই ক্ষমতার সাথে যুক্ত থাকে সেইটা গ্রহণ করেননি। পরিবর্তে উরুগুয়ের রাজধানী মন্টেভিডিও থেকে বহু মাইল দূরে একটা  খামারে বসবাস করতেন। জোস মুজিকার ৯০ % মাসিক বেতন দান করে দিতেন, যেটার  সমতুল্য করলে ৭,৫০০ পাউন্ডস নগদ। সব দানশীলতা করার পর নিজের কাছে মাত্র ৪৮৫ পাউন্ডস নগদ পরে থাকতো সারা মাস চালানোর জন্য। দেশের রাষ্ট্রপতি ছাড়াও খন্ডকালীন কৃষকের কাজ করতেন। তাঁর অমূল্য সম্পদ শুধু দুটো জিনিসই ছিল। একটি জরাজীর্ণ ভক্সওয়াগেন বিটল গাড়ি  ও দ্বিতীয়টি হচ্ছে  ওনার তিনপেয়ে কুকুর, যার নাম ম্যানুয়েলা। জোস একটি কুয়ো থেকে জল আনতেন যেটা প্রবৃদ্ধ আগাছা দিয়ে ঘেরা এবং ওনার লন্ড্রি সামান্য ধোপার কাছে যেত, কোনো ড্রায়ারের কাছে নয়।এই রাষ্ট্রপতির কঠোর আত্মসংযমী জীবনযাপন সারা পৃথিবীর ক্ষমতাশীল ব্যক্তিদের জন্য একটা উদহারণ। আমাদের সমাজে ছোট বড় মন্ত্রী গুলো যেই পদ্ধতিতে জীবন কাটায়, ঘুষ নিয়ে, অবৈধ কাজ করে, ক্ষমতার অপব্যবহার করে, সেই সব মানুষ গুলো আর জোস মুজিকার মধ্যে আকাশ পাতাল তফাৎ।