বাংলাদেশে রাজাকার বাহিনীর তালিকা মুক্তিযোদ্ধা তপন কুমার চক্রবর্তীর নাম

আজবাংলা  ঢাকা     বাংলাদেশে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি সেনাদের সহায়তার জন্য গঠিত রাজাকার বাহিনীর সদস্যদের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে সরকার। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত এই তালিকায় ১০ হাজার ৭৮৯ জন রাজাকারের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের প্রকাশ করা রাজাকার তালিকায় বরিশালে আছে এক মুক্তিযোদ্ধার নাম৷সেই মুক্তিযোদ্ধা আবার সরকারেরই প্রকাশ করা মুক্তিযোদ্ধা তালিকাতেও রয়েছেন৷

বরিশালের বামপন্থী রাজনৈতিক দল বাসদের জনপ্রিয় নেত্রী ডা. মনীষা চক্রবর্তীর বাবা এড. তপন কুমার চক্রবর্তী এবং ঠাকুমা উষা রানি চক্রবর্তীর নাম ঢুকানো হয়েছে রাজাকারের তালিকায়! যেখানে তপন কুমার ৬৫ নম্বর রাজাকার এবং উষা রানি ৪৫ নম্বর রাজাকার হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। যদিও তপন কুমার চক্রবর্তী একজন গেজেটেড মুক্তিযোদ্ধা, ক্রমিক নং ১১২ পৃষ্টা ৪১১৩। তিনি নিয়মিত মুক্তিযোদ্ধা ভাতাও পেয়ে থাকেন! এই মারাত্মক ঘটনা নিয়ে সোশ্যাল সাইট ফেসবুকে ডা. মনীষা চক্রবর্তী মনীষা তার পোস্টে বলেছেন, ‘‘মানুষের জন্য নিঃস্বার্থ কাজ করার পুরস্কার পেলাম আজ। ধন্যবাদ আওয়ামী লীগকে। সদ্য প্রকাশিত রাজাকারদের গেজেটে আমার বাবা এবং ঠাকুমার নাম প্রকাশিত হয়েছে।”একটি স্ট্যাটাস দেওয়ার পর থেকে নিন্দার ঝড় উঠেছে। মানুষ প্রশ্ন করছেন, রাজাকারের তালিকার নামে আসলে কী হয়েছে? ডা. মনীষা চক্রবর্তীর অভিযোগ, একদিকে তার বাবা অ্যাডভোকেট তপন কুমার চক্রবর্তীর নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকার গেজেটে ৪১১৩ পৃষ্টায় ১১২  নম্বরে রয়েছে, অন্যদিকে নতুন প্রকাশ করা রাজাকার তালিকাতেও নাম উঠেছে তার৷ মনীষার ঠাকুরদা (বাবার বাবা) অ্যাডভোকেট সুধির কুমার চক্রবর্ত্তীর নামও রয়েছে মুক্তিযোদ্ধা তালিকায়৷ কিন্তু সুধির কুমারের স্ত্রী অর্থাৎ মনীষার ঠাকুমা (বাবার মা) উষা রানী চক্রবর্ত্তীর নাম স্থান পেয়েছে রাজাকার তালিকায়৷

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!