লক ডাউনের মধ্যেই যুবকে হাত-পা-মুখ বেঁধে কুপিয়ে নৃশংস খুন

আজবাংলা   মালদা   : মোবাইল নিয়ে বচসার জেরে চাকু মারার অভিযোগ উঠেছিল এক যুবকের বিরুদ্ধে। ওই যুবককে বেঁধে মারধর করে গ্রামবাসীরা। গ্রামবাসীদের মারধরে মৃত্যু হয়েছে ওই যুবকের বলে অভিযোগ। শুক্রবার সন্ধেয় ঘটনাটি ঘটেছে ইংরেজবাজার থানায় কমলাবাড়ি এলাকায়। মৃত যুবকের নাম ইসমাইল শেখ (২২)। পুলিশ মৃতদেহটিকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেলে পাঠিয়েছে।জানা গিয়েছে, মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগকে কেন্দ্র করে বিবাদের সূত্রপাত। মৃত ইসমাইলের বিরুদ্ধে গত বৃহস্পতিবার মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগ তোলে গ্রামেরই যুবক আসগর সেখ।চোর অপবাদ দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওইদিনই আসগারকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে ইসমাইল। পেটে ধারালো অস্ত্রের আঘাত লাগায় আসগরকে চিকিৎসার জন্য মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে মালদহ  মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আসগর। এদিকে ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা করার পরেই বেপাত্তা হয়ে যায় ইসমাইল। শুক্রবার রাতে তাঁকে এলাকায় ফিরে  আসতে দেখে ধরে ফেলে এলাকার বাসিন্দাদের একাংশ। এরপর হাত বেঁধে এলোপাথারি মারধর করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ পৌছনোর আগেই অচৈতন্য অবস্থায় ইসমাইলকে বাঁধাপুকুর মোড় এলাকায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় দুস্কৃতীরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষনা করে।পাশাপাশি ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।