লকডাউনে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন তেল ছাড়া মুরগির মাংস।

লকডাউনে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন তেল ছাড়া মুরগির মাংস।
আজবাংলা      লকডাউনে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন তেল ছাড়া মুরগির মাংস। কিন্তু খেতে লা জবাব। ভাত কিংবা রুটির সঙ্গে খেতে পারবেন এই পদ। করোনা আবহে জোর দিতে বলা হচ্ছে রোগ প্রতিরোধের উপর। সে ক্ষেত্রে মুরগির মাংস রোজ খেলেও কোনও সমস্যা নেই, বলছেন পুষ্টিবিদরা।প্রোটিনের জন্য চিকেন ছাড়াও দই ব্যবহার করা হয়েছে এই রান্নায়। এ ছাড়াও আদা এবং হলুদ, গরম মশলারও ব্যবহারও হয়েছে এতে।

উপকরণ

ম্যারিনেশনের জন্য

৫০০ গ্রাম চিকেন

৩ থেকে চার কাপ দই

এক টেবিল চামচ রসুন বাটা

এক টেবিল চামচ আদা বাটা

এক টেবিল চামচ জিরে গুঁড়ো

 

হাফ টেবিল চামচ কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো (ইচ্ছে মতো)

হাফ টেবিল চামচ লঙ্কা গুঁড়ো (নাও দেওয়া যেতে পারে)

এক টেবিল চামচ ধনে গুঁড়ো

এক চা চামচ হলুদ গুঁড়েো

এক চা চামচ গরম মশলা

নুন (স্বাদ মতো)

 

গ্রেভির জন্য

টোম্যাটো কুচি ৮টি (ছোট)

২টি পিঁয়াজ কুচি

৮ কোয়া রসুন

২টি কাঁচা লঙ্কা

৪-৫টি কাজু (নাও দিতে পারেন)

 

একটি তেজপাতা

একটি দারচিনি

দুটি এলাচ

হাফ চা চামচ গরম মশলা

 

দু চা চামচ টোম্যাটো কেচ-আপ (নাও দিতে পারেন)

এক চা চামচ পোস্ত

২ চা চামচ কসৌরি মেথি

ঘন করা দু চামচ দুধ বা ক্রিম

  • প্রণালী: চিকেনগুলিকে ভাল ভাবে ম্যারিনেশনের জন্য উল্লেখ করা মশলা মাখিয়ে রেখে দিতে হবে ঘণ্টাদুয়েক। চিকেনগুলির মধ্যে যাতে মশলা প্রবেশ করে, তাই ফর্ক বা ছুরি দিয়ে চিরে দিতে হবে। এরপর টোম্যাটো, পিঁয়াজ, রসুন, কাঁচা লঙ্কা, কাজু, পোস্ত, তেজপাতা ও হাফ কাপ জল দিয়ে দুটো হুইসল দিতে হবে অর্থাৎ মিনিট ১৫ রান্না করতে হবে। ঠান্ডা করে তারপর এর মধ্যে আরও খানিকটা জল মিশিয়ে তেজপাতা, লবঙ্গ, দারচিনি-এলাচ তুলে নিয়ে বাকিটা বেটে নিতে হবে মিক্সার বা শিলনোড়ায়।