প্রশাসনের উদ্যোগে ত্রাণসামগ্রী পেল মালদার বেদে ও মুসহররা

আজবাংলা   মালদা :    করোনা ভাইরাস সংক্রমনের জেরে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। লকডাউন এর মধ্যেই চরম সংকটে পড়েছিল মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার গড়গড়ি ও বাইসা বাগান সংলগ্ন এলাকার বেদেও মুসহর সম্প্রদায়ের লোকেরা। প্রধানত হাটে হাটে মাদারি খেলা মধু সংগ্রহ কবিরাজি ওষুধ বিক্রি এসব এদের পেশা। লক ডাউন এর জন্য এ সমস্ত বন্ধ হয়ে যাওয়াতে খাদ্য সংকটে পড়ে গেছিল প্রায় শ'খানেক পরিবার ওই সম্প্রদায়ের লোকেরা। লকডাউন এর শুরুতে কিছুটা সরকারি ত্রাণ মিললেও তা কয়েক দিনে শেষ হয়ে যায়। এরপরই খিদের জ্বালা সহ্য করতে না পেরে কচু পাতা সেদ্ধ খেয়ে দিনযাপন করতে থাকে ওই সম্প্রদায়ের শিশু-থেকে বৃদ্ধরা। এই খবর সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত হতেই নড়েচড়ে বসে মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর পুলিশ প্রশাসন থেকে শুরু করে ব্লক প্রশাসন। ব্লক প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে এই সমস্ত বেদে ও মুসার পরিবারের হাতে চাল ডাল আলু সাবান প্রকৃতি ত্রাণ সামগ্রী তুলে দেওয়া হল।ওই সম্প্রদায়ের জগদীশ বেদ জানিয়েছেন বেশ কয়েকদিন থেকে কাজকর্ম বন্ধ হয়ে আমরা বাড়িতে আটক হয়ে পড়ে আছি। রোজগার বন্ধ।প্রথমদিকে সরকারি ত্রাণ পাওয়া গিয়েছিল কিছু। কিন্তু খুব তাড়াতাড়ি সেটা শেষ হয়ে যায়। রেশন থেকো আমরা পর্যাপ্ত সামগ্রী পাচ্ছিনা। তাই বেশ কিছুদিন থেকেই খাবার না মেলাতেই বাধ্য হয়ে কচু পাতা সেদ্ধ খেতে শুরু করেছিলাম পেট ভরানোর তাগিদে। আজকে আবার সরকারি উদ্যোগে আমরা চাল ডাল অন্যান্য খাবার সামগ্রী পেয়েছি তার জন্য আমরা স্থানীয় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাই। আশা করব আগামীতেও তারা আমাদের পাশে থাকবেন।এদের হরিশ্চন্দ্রপুর থানা চত্বর থেকে ওই সমস্ত পরিবারের হাতে কয়েক দিনের খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়।