পুরুষকে ন্যূনতম দু’টি বিয়ে না করলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

পুরুষকে ন্যূনতম দু'টি বিয়ে না করলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।
পুরুষকে ন্যূনতম দু'টি বিয়ে ।
আজবাংলা দেশের সব পুরুষের জন্য এমনই আইন জারি করছে আফ্রিকার ছোট্ট দেশ এরিত্রিয়া সরকার। নির্দেশ অমান্য করলেই মিলবে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড। এমনকী কোনও স্ত্রী যদি তাঁর স্বামীকে দ্বিতীয় বিয়ে করতে বাধা দেন, তা হলে শাস্তি হবে যাবজ্জীবন জেল।’ এটি এরিত্রিয়ার সরকারি আইনে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে। এরিত্রিয়াতেই শুধুমাত্র এমন অদ্ভুত আইন জারি করা হয়েছে। রীতিমতো ধর্মীয় আইনের মাধ্যমে এই নির্দেশকে মান্যতা দিয়েছেন গ্র্যান্ড মুফতি। আইনে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে, এরিত্রিয়ার সমস্ত পুরুষকে ন্যূনতম দু’টি বিবাহ করতেই হবে। যদি দেশের কোনও পুরুষ বা নারী এই সিদ্ধান্তে আপত্তি জানান, তা হলে শাস্তি হবে যাবজ্জীবন জেল।  সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে, দেশে পুরুষের সংখ্যা কমে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। এর আগে দীর্ঘদিন ইথিওপিয়ার সঙ্গে যুদ্ধের কারণে অনেক পুরুষ হারিয়েছে এরিত্রিয়া। ক্রমশ পুরুষশূন্য হয়ে পড়ছে এই দেশ। তাই দেশের স্বার্থেই এই আইন বলবৎ করেছে দেশটির সরকার।  উল্লেখ্য, ইরিত্রিয়ার জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক খ্রিস্টান এবং বাকি অর্ধেক মুসলিম ধর্মাবলম্বী বলে সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে। আফ্রিকার ছোট্ট এই দেশ ইরিত্রিয়ার জনসংখ্যা ৬৪ লক্ষেরও কিছু কম। দেশটির একদিকে সুদান অপরদিকে ইথিওপিয়া। আরেকদিকে জিবুতি, আরেক প্রান্তে লোহিত সাগর। আফ্রিকার দেশগুলোর মধ্যে কেনিয়াতে ২০১৪ সালে বহুবিবাহ আইনসিদ্ধ করা হয়। তবে এ ক্ষেত্রে একজন পুরুষ সর্বোচ্চ কয়টি নারীকে বিয়ে করতে পারবে, তার কোনো সীমা নির্ধারণ করে দেয়া হয়নি।