ভাবা যায়! ১০০টি মোমবাতি জ্বালিয়ে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে ভয়ঙ্কর পরিণতি....

ভাবা যায়! ১০০টি মোমবাতি জ্বালিয়ে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে ভয়ঙ্কর পরিণতি....

আজ বাংলা: নিজের মনের মানুষকে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে ভয়ঙ্কর ঘটনার শিকার হলেন এক প্রেমিক যুগল। প্রিয়জনকে খুশি করতে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ার জন্য  জবরদস্ত প্ল্যান কষেছিলেন এক যুবক। 


১০০টি মোমের রোম্যান্টিক আলোয় সারাজীবন একসঙ্গে থাকার প্রস্তাব দিয়ে ফেলার কথা ভেবেছিলেন। এরপরেই ঘটে ভয়ঙ্কর পরিণতি। সেই মোমবাতি থেকে আগুন লেগে গিয়ে গোটা ফ্ল্যাটটাই পুড়ে ছাড়খার হয়ে গিয়েছে। এরপর দমকলের ৩টি ইঞ্জিন কোনও মতে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিভিয়েছে।

জানা গিয়েছে, ঘটনার শিকার ইংল্যান্ডের শেফিল্ড শহরের এক প্রেমিকযুগল। বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে ভয়ংকর ঘটনার সাক্ষী হতে হল দু’জনকে। জানা গিয়েছে, অফিস থেকে প্রেমিকাকে বাড়িতে নিয়ে এসে সেদিনই বিয়ের জন্য প্রস্তাব দেবেন ঠিক করেছিলেন। তার জন্য ঘরের বিভিন্ন প্রান্তে রঙিন মোমবাতি, বেলুন ও কেকের বন্দোবস্তও করেছিলেন অ্যালবার্ট নদ্রে নামের ওই যুবক। 


কিন্তু প্ল্যানিংয়ের গলদ! ফ্ল্যাটের ভিতর ১০০টি মোমবাতি জ্বেলে ঘর সাজিয়ে রেখে গিয়েছিলেন প্রেমিকাকে অফিস থেকে আনতে। ব্যস! ওই হল কাল। ফিরে এসে দেখলেন গোটা ফ্ল্যাট দাউ-দাউ করে জ্বলছে। ভিতরটা যেন একেবারে পাঁপড় ভাজা অবস্থা।

দমকলের দফতরের তরফ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা হয়েছে সেই ফ্ল্যাটটির নানা ছবি। সেই সঙ্গে ঘটনার বিবরণ দিয়েও সতর্ক করা হয়েছে প্রেমিকযুগলদের যাতে প্রেমের জোয়ারে ভেসে গিয়ে এমন কাণ্ড না ঘটিয়ে বসেন তাঁরাও! কিন্তু সেই প্রেমিকযুগলের কী হল এই ঘটনার পর? 

দমকল দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, তাঁরা সুস্থই রয়েছেন। তাঁদের কিচ্ছু হয়নি। কিন্তু বড় ধরণের বিপদের হাত থেকে বেঁচে গিয়েছেন। আর হ্যাঁ, ইতিমধ্যেই ওই প্রেমিকা তাঁর প্রেমিককে বিয়ের জন্য ‘হ্যাঁ’ বলে দিয়েছেন।