দুষ্কৃতীদের হামলায় মৃত সেচদপ্তরের কর্মী আলম শেখ স্মরণে সভা মালদা জেলা জয়েন্ট কাউন্সিলের ।

স্মরণ সভা
স্মরণ সভা

দেবু সিংহ আজবাংলা মালদা স্বামীর মৃত্যুর জন্য দায়ী অপরাধীদের শাস্তি চাইলে তার বিধবা স্ত্রী তুহিনা ইয়াসমিন । এছাড়া ও তিনি পরিবারকে আর্থিক কষ্ট থেকে মুক্তি দিতে আলমের চাকরির দাবি জানালো ।দুষ্কৃতীদের হামলায় মৃত সেচদপ্তরের কর্মী আলম শেখ স্মরণ সভায় এসে এই দাবি জানান আলমের স্ত্রী তাহিনা ইয়াসমিন । মালদা শহরের অতুল মার্কেটের ননী ভট্টাচার্য ভবনে এই স্মরণ সভার আয়োজন করে মালদা জেলা জয়েন্ট কাউন্সিল গত ১ জুন ভূতনীর গঙ্গা ভাঙন রোধের কাজ করতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের আক্রমণে চরম ভাবে আহত হয় আলম সেখ ও চিরঞ্জীব মিশ্র।গত ১২ জুন মহ আলম সেখ মারা যায় । অন্য সেচ দপ্তরের কর্মী চিরঞ্জীব মিশ্র প্রানে বেচে গেলেও এখন ও চরম ভাবে আহত হয়ে চিকিৎসাধীন।এদিনের স্মরণসভায় উপস্থিত ছিলেন জয়েন্ট কাউন্সিলের রাজ্যের সহ সম্পাদক বলাই সরকার, মালদা জেলার সম্পাদক শঙ্কর সরকার, যুগ্ম সম্পাদক গোবিন্দ দাস, ও আর এস পির শ্রমিক সংগঠন ইউ টি ইউ সির জেলা সভাপতি গৌতম গুপ্ত । আরএসপির শ্রমিক সংগঠন ইউ টি ইউ সি জেলা সভাপতি গুপ্ত জানিয়েছেন ” শেষ দপ্তরের দুই কর্মীর উপর এই হামলার ঘটনার পর সেচ দপ্তরের ও পুলিশ প্রশাসনের সর্বস্তরের ভূমিকা খুব ভালো । ভিনরাজ্যে গিয়ে পুলিশ অপরাধী দের ধরেছে ।আমাদের ধারনা বহু বাঁধা বিপত্তি থাকা সত্যেও সেচ দপ্তরের আধিকারিক চিরঞ্জীব মিশ্র ভূতনীর কাজ সমাজ বিরোধীদের দাপট উপেক্ষা করে প্রায় শেষ করে দিয়েছিলো । এটার জন্য সমাজ বিরোধীদের টার্গেট ছিলো সেচ দপ্তরের আধিকারিকরা । সরকারি প্রকল্পের কাজে গিয়ে দুষ্কৃতীদের আক্রমণে এই আত্মবলিদান কখনো ভূলে যাবে না ।” স্মরন সভায় মৃত আলম সেখের স্ত্রী তাহিনা ইয়াসমিন বলেন তিনি চান আলম সেখের মৃত্যুর জন্য যারা দায়ী তারা যেন শীঘ্রই শান্তি পায় ।এছাড়া সরকার যেন তার চাকরির ব্যবস্থা করে । জয়েন্ট কাউন্সিলের সমস্ত প্রতিনিধি ও সদস্য আলমের স্ত্রীর পাশে থাকবে বলে তাকে জানান ।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!