আরও সঙ্কটজনক প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি, জানাল এইমস।

অরুণ জেটলি
অরুণ জেটলি

আজবাংলা অটল বিহারী বাজপেয়ী থেকে নরেন্দ্র মোদী-টানা কয়েক বছর কেন্দ্রের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন অরুণ জেটলি। অটল বিহারী বাজপেয়ীর সরকারে আইনমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলেছেন। তথ্য ও সম্প্রচার এবং বিলগ্নিকরণ প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বও সামলেছেন। মনমোহন জমানায় ছিলেন রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতা। মোদী জমানার প্রথম দফায় অর্থ ও বাণিজ্যমন্ত্রকের গুরুদায়িত্ব ছিল তাঁর কাঁধে। যদিও, কিডনির অসুখের পর মন্ত্রিসভায় অনিয়মিত হয়ে পড়েন। কিডনি প্রতিস্থাপনের পর একেবারেই নিজেকে গুটিয়ে নেন।শারীরিক অসুস্থতার কারণে, দ্বিতীয়বার মোদী সরকারে যোগ দেননি। সম্প্রতি বেশ কিছুদিন ধরে তাঁর স্বাস্থ্য ভালো যাচ্ছিল না। বিদেশেও গিয়েছিলেন চিকিত্সার জন্য। এবছর ফেব্রুয়ারিতে চিকিত্সার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও গিয়েছিলেন জেটলি। শারীরিক সমস্যার কারণ ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে তিনি লড়াইও করেননি। এইমস আপাতত রয়েছেন লাইফ সাপোর্ট সিস্টেমে।রবিবার তাঁর ফুসফুস সঠিকভাবে কাজ না করায়, বর্তমানে তাঁকে একস্ট্রাকর্পোরিয়াল মেমব্রেন অক্সিজেনেশন (ECMO) বিভাগে রাখা হয়েছে। এইমস সূত্রে জানা গিয়েছে, গত কয়েক দিন ধরে জেটলির শারীরিক পরিস্থিতির দ্রুত অবনতি ঘটতে থাকে। ৯ অগাস্ট নিঃশ্বাসের সমস্যা নিয়ে দিল্লির এইমস-এ ভর্তি করা হয় অরুণ জেটলিকে।জেটলিকে দেখতে রাতে এইমস-এ পৌঁছেছেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। বিকেলেই প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীকে দেখে গিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামবিলাস পাসোয়ান।