নদীয়ায় পনের দাবিতে স্ত্রীর গলায় গামছা ঝুলিয়ে মারার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে ।

আজবাংলা ধুবুলিয়া আবারও অতিরিক্ত পনের দাবীতে এক গৃহবধূকে মানসিক এবং শারিরিক নির্যাতন করে গলায় গামছা দিয়ে ঝুলিয়ে মারার অভিযোগ উঠল শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে ।নদিয়ার ধুবুলিয়া থানার সিংহাটি হিন্দু পাড়ার ঘটনা। অভিযোগ পেয়ে ধুবুলিয়া থানা স্বামী প্রল্হাদ প্রামানিক এবং দেওর শুকদেব প্রমানিককে আটক করে। সূত্রের খবর , ছমাস আগে হিন্দু শাস্ত্রমতে ধুবুলিয়া থানার সিংহাটি হিন্দু পাড়ার বাসিন্দা প্রহ্লাদ প্রামাণিকের সাথে চাকদাহর মদনপুর নিবাসী পূজা প্রামাণিকের বিবাহ হয়েছিল।বিবাহের কিছুদিন পর থেকেই অভিযোগ বাপের বাড়ি থেকে অতিরিক্ত পণ নিয়ে আসার দাবিতে পূজার ওপর তাঁর স্বামী প্ৰহ্লাদ প্রামানিক এবং দেওর শুকদেব প্রামাণিক তার ওপর মানসিক এবং শারিরীক নির্যাতন করত। সোমবার সন্ধ্যেবেলায় শ্বশুর বাড়ির বাথরুমে পূজাকে (২২) গলায় গামছা দিয়ে ঝুলতে দেখা গেলে পাড়াপ্রতিবেশিরা পূজাকে ধুবুলিয়া প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার সেখানে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করে। মৃত পূজার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামী প্ৰহ্লাদ প্রামাণিক এবং দেওর শুকদেব প্রমানিককে ধুবুলিয়া থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পুলিশ সূত্রে প্রাথমিক তদন্তে জানা যায় বিয়ের পর থেকেই তাঁদের মধ্যে একটা দাম্পত্য কলহ চলছিল।আর এই দাম্পত্ত্য কলহের জেরেই এই ঘটনা।