এক মঞ্চে নরেন্দ্র মোদী ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। হাউডি-মোদীর সভা নিয়ে মুখিয়ে রয়েছে হিউস্টন।

আজবাংলা রবিবার আমেরিকার হাউস্টনে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর মেগা শো। আয়োজক, আমেরিকায় বসবাসকারী মার্কিন নাগরিকরা। এনিয়ে তৃতীয়বার অনাবাসী ভারতীয়দের সামনে সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে এবারের সভা আরও গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে কাশ্মীর আবহে যখন পাকিস্তান ভারতকে বিশ্বের কাছে কোণঠাসা করতে মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে। সভায় থাকবেন ডোনাল্ড ট্রাম্পও। নিঃসন্দেহে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের কাছে  বাড়তি পাওনা। দুই রাষ্ট্রপ্রধানকে একসঙ্গে দেখার উন্মাদনা চড়ছে মার্কিন মুলুকে। ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যের নতুন সমীকরণ ঘোষণা করতে পারেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বড় ঘোষণা হলে বিশাল অ্যাডভান্টেজ পাবেন মোদী। এক মঞ্চে নরেন্দ্র মোদী ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। হাউডি-মোদীর সভা নিয়ে মুখিয়ে রয়েছে হিউস্টন।টেক্সাসের হাউস্টনের এনআরজি স্টেডিয়ামের এই সভায় থাকতে চেয়ে ইতিমধ্যেই ৫০ হাজার নাম নথিভূক্ত হয়ে গিয়েছে। সংখ্যাটা ১  লক্ষেও পৌছলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। আমেরিকার মাটিতে কোনও বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধানের সভায় এত লোক আগে হয়নি।বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই সমাবেশকে যে হোয়াইট হাউসও গুরুত্ব দিয়ে দেখছে তা ট্রাম্পের কথাতেই স্পষ্ট।  তবে আরও একটি বিষয়ও উঠে আসছে। ২০২০-তে আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট পদের নির্বাচন। সেই নির্বাচনে ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিনরা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে। ‘হাউডি মোদী’ হল সেই সব ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিনদের একটি সভা। নয়াদিল্লি যেমন এই সমাবেশকে কাজে লাগানোর চেষ্টা করবে, তেমনই মার্কিন প্রেসিডেন্টও আগামী নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে এই সুযোগটাকে কাজে লাগাতে চাইবেন বলে মনে করা হচ্ছে।দ্বিতীয়বার লোকসভা নির্বাচনে জয়ের মধ্য দিয়ে ক্ষমতায় ফেরার পর, এটাই হবে প্রধানমন্ত্রীর প্রথম মার্কিন সফর।