'ধৈর্য রাখুন সুপ্রিম কোর্টের ওপর ভরসা রাখুন', সুশান্তের পরিবারের পাশে নির্ভয়ার মা

'ধৈর্য রাখুন সুপ্রিম কোর্টের ওপর ভরসা রাখুন', সুশান্তের পরিবারের পাশে নির্ভয়ার মা

আজবাংলা        গতকাল ছিল ১৪ অগাস্ট ঠিক ২ মাস আগে অর্থাৎ ২ জুন সকলকে ছেড়ে চলে গিয়েছেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সুশান্ত সিগ রাজপুত | মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় নিজের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল অভিনেতার মৃতদেহ | তার মৃত্যুটা কি সত্যিই খুন নাকি আত্মহত্যা? এই নিয়ে কর্মী জঠিল হয়ে উঠছে তদন্ত | নাকি অভিনেতার মৃত্যুর পিছনে লুকিয়ে রয়েছে বড়সড় কোন রহস্য? তা নিয়ে এখনও চলছে জোর কদমে তদন্ত | যে দিনে দিনে নাম করছিলেন একের পর এক ছবিতে সাফল্য পাচ্ছিলেন সে কেন আত্মহত্যা করতে যাবেন? এই প্রশ্নই আজ ভাবাচ্ছে সকলকে | সুশান্তের মৃত্যুর সুবিচারের দাবিতে আজ উত্তাল গোটা দেশ | 

বাবা-মেয়ের কাছে ৫ দিদির পর জন্ম হয়েছিল সুশান্ত | স্বাভাবিক ভাবেই দিদিদের কাছে আদরের ছোট ভাই ছিল এবং বাবা-মায়ের একমাত্র পুত্র সন্তান ছিলেন অভিনেতা |  কিশোর বয়সেই নিজের মাকে হারিয়েছিলেন সুশান্ত | তাই মায়ের আদর দিয়ে তাকে বড় করে তুলেছিলেন তার তিন দিদি | আজ তাদের কোল শুন্য | প্রতিটা মুহূর্তে নিজের ভাইকে কাছে না পাওয়ার বেদনা অনুভব করছেন সুশান্তের দিদিরা | আজ সকলের মতই সুশান্তের পরিবারের পাশে এসে দাঁড়ালেন নির্ভয়ার মা আশা দেবী | 

আশা দেবী বলেন, '' ভাইয়ের জন্য দিদি যেভাবে করছেন, দেখে আমার সত্যিই খুব কষ্ট লাগছে | পরিবারকে বিশ্বাস করতে হবে, ন্যায়বিচার একদিন ঠিক আসবে | আমি শুধু বলতে চাই, পুরো দেশ আপনাদের সঙ্গে রয়েছে |'' একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ''আমি শ্বেতা সিং কীর্তিকে এই ভরসাটা দিতে চাই, সত্যি ঠিক একদিন সামনে আসবে |'' আসা দেবী  আরও জানান, '' সুপ্রিম কোর্ট আপনাদের সঙ্গে আছে, বিহার পুলিশ আপনাদের পাশে আছে, সর্বোপরি গোটা দেশ আপনাদের পাশে | যদি সময়ও লাগে, জানবেন সুবিচার আপনারা ঠিক পাবেন!'' 

এর পাশাপাশি সুশান্তের বাবা কে কে সিং রাজপুতের উদ্দেশ্যে আশা দেবী বলেন, '' ধৈর্য রাখুন | সুপ্রিম কোর্টের ওপর ভরসা রাখুন | দেখবেন, সুশান্তের মৃত্যুতে ঠিক সিবিআই তদন্ত হবে |'' অভিনেতার মৃত্যুর পর থেকেই একের পর এক তথ্য উঠে আসছে সকলের সামনে | সকলের আক্রমণের মুখে পড়েছেন অভিনেতার বান্ধবী অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী | এর মধ্যেই সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তভার গিয়ে পড়েছে সিবিআইয়ের হাতে | তারপরেই ইডির দফতর থেকে ডেকে পাঠানো হয় রিয়া চক্রবর্তী সহ তার পরিবার এবং তার ম্যানেজারকে | দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাদের | ইডির দফতরে তদন্ত চলাকালীন আরও বেশ কিছু তথ্য উঠে এসেছে, সেই সমস্ত তথ্য উঠে আসার পর অভিনেতার কি কারণে মৃত্যু হয়েছে তা আরও বেশি করে ভেবেছে সকলকে |