কালিয়াচক থেকে রানিগঞ্জ, দেখা নেই বাংলার বুদ্ধিজীবীদের ।

not see the intellectuals of Bengal
বাংলার বুদ্ধিজীবী
 not see the intellectuals of Bengal
বাংলার বুদ্ধিজীবী

আজবাংলা কালিয়াচক থেকে রানিগঞ্জ। গঙ্গা দিয়ে অনেক জল বয়ে গেছে তবুও বাংলার প্রগতিশীল সুবিধাবাদী বুদ্ধিজীবীদের আর দেখা নেই। কতদিন বসে থাকতে হবে ওঁদের দেখা পাওয়ার জন্য! কেউ জানেনা , দিল্লিতে কিছু হলে বাংলার রাস্থায় বসে পরা বামপন্থী বুলি আওড়ানো নিজে দের বুদ্ধিজীবী ভাবা সুবদ থেকে বিকাশ ও কা! শুভাপ্রসন্ন  রা গেল কোথাই কেউ জানেনা। (রাম মানেই হিন্দু) তবে এটা ঠিক রামের দলের লোকেরা মার খেলে এদের কিছু আসে যায় না । তবে রামের দলের লোকেরা কেউ রাস্থায় নামবেনা কারন মার্চের ভ্যাপসা গরমে পথে নামতে হবে? কালিয়াচক, ধূলাগড়, বসিরহাট, হাজিনগড়, এবং সর্বশেষ সংস্করণ রানিগঞ্জ। অগ্নিগর্ভ রাণীগঞ্জ নিয়ে মিডিয়া প্রতিষ্ঠান গুল জেন বোবা, শাসকের ভয়ে ভিত সাংবাদিকরাও। বাংলায় লেখার স্বাধীনতা আজ হারিয়ে গেছে । ধীরে ধীরে হারিয়ে যাচ্ছে শ্রী চৈতন্য মহাপভুর বাংলা । হয়ে উঠছে সিরিয়ার ISIS মতো চরম জঙ্গিপনা ঘাঁটি গেড়ে বসা বাংলা ।  সোমবার রানিগঞ্জে রামনবমীর মিছিলকে কেন্দ্র করে শুরু হওয়া সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা . সংঘর্ষে প্রাণ হারান এক যুবক। ওই সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে বোমার আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছেন আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের ডিসি (সদর) অরিন্দম দত্তচৌধুরী। অরিন্দম দত্ত চৌধুরীর হাতে বোমা পড়ায় হাত ছিন্ন বিছিন্ন হয়ে যায় । তবুও হেলদোল নেই বাংলার প্রগতিশীল সুবিধাবাদী বুদ্ধিজীবীদের । সুতরাং বুঝে নেওয়া দরকার বাংলার প্রগতিশীল সংস্কৃতি বলে সত্যিই কিছু আছে কিনা। যদি থাকে, তাহলে সেটা কোথায়? দিল্লি ও রাজস্থানের জন্ন , নাকি বাংলার জন্ন? সময় বলবে শেষ কথা ।