রোগ মৃত্যুকে কেন্দ্র করে রোগীর পরিবারের হাসপাতাল ভাঙচুর কর্মবিরতি নার্সদের

আজবাংলা ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগে রোগী পরিবার ও নার্স দের ধুন্ধুমার কান্ড রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে, কর্মবিরতি বিক্ষোভে ধর্না নার্সদের । রবিবার করদিঘীর এক মহিলা পেটে ব্যথা নিয়ে ভর্তি হয় রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে।রোগীর পরিবারের বিরুদ্ধে হাসপাতাল ভাঙচুর ও ডাক্তার হেনস্তা অভিযোগ সামনে এসেছে। হাসপাতাল চত্তরে ঘটনার জেরে ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দিয়েছে । পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেতে ঘটনাস্থলে পৌঁচ্ছায় রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল।সূত্রে খবর মৃতা ওই ব্যক্তি করণিদিঘির থানার খিকিরটোলা গ্রামের বাসিন্দা লিপিকা সিনহা রবিবার রাতে বুকে ব্যাথা নিয়ে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।মৃতার আত্মীয়দের অভিযোগ, রবিবার রাতে লিপিকা সিনহা পেশা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকা বুকের ব্যাথা জন্য ভর্তি করা হয় ব্যথা বেশি হলে নার্স দের বারবার বলার পরেও কেউ এগিয়ে আসেন নি মারা যাওয়ার পরে। নার্সেরা তাঁকে ইঞ্জেকশন দেন। ভুল চিকিৎসা ও অবহেলা ফলেই মৃত্যু হয়েছে। মৃতার ভাই বিপ্লব সিনহা তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন হাসপাতালের নার্সরাই বহিরাগতদের নিয়ে এসে তাদের উপর হামলা চালায়। তার আরও অভিযোগ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ও নার্সদের গাফিলতি ও ভূল চিকিৎসার কারণেই মৃত্যু হয়েছে রোগীর।অপরদিকে হাসপাতালের কর্তব্যরত নার্স তন্ময়ী বিশ্বাস জানিয়েছেন, রোগীর মৃত্যুর পরই তাঁর পরিবারের লোকজন এসে আচমকা তাঁদের উপর হামলা চালায়। তাঁকেও ব্যাপক মারধর করে। হাসপাতালে ভাঙচুর চালানো হয়। চরম আতঙ্ক ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন তিনি ও তাঁর সঙ্গীরা। নিরাপত্তার দাবীতে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজে নার্সদের কর্মবিরতি ধর্ণা ও বিক্ষোভ দেখতে থাকে ।পুলিশি নিরাপত্তার দাবীতে আন্দোলনে নামে মেডিক্যাল কলেজের নার্সরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে পৌচ্ছায় রায়গঞ্জ থানার উচ্চ পদস্থ আধিকারিকা