বিশ্ব বাজারে তেলের দাম সর্বনিম্ন, যা ইতিহাসে এই প্রথম

আজবাংলা   ভয়ংকর ভাইরাস নোভেল করোনার তাণ্ডবে অপরিশোধিত তেলের বাজারেও মন্দা দেখা দিয়েছে। গত কুড়ি বছরের মধ্যে মার্কিনী তেলের দাম সর্বনিম্ন স্থানে পৌঁছেছে।বিশ্বের ইতিহাসে এই রকম ঘটনা ঘটেনি অতীতে৷সোমবার, ২০ এপ্রিল মার্কিন শেয়ারবাজারে অপরিশোধিত তেল কোম্পানিগুলোর শেয়ারের দাম কমেছে ২০%। সোমবার এশিয়ার বাজারে লেনদেনের শুরুতে ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই) তেলের দাম ১৪ শতাংশ কমে গেছে। প্রতি ব্যারেল ১৫ দশমিক ৬৫ ডলারে গিয়ে ঠেকেছে। অ্যাভাট্রেডের বিশ্লেষক নইম আসলামের কথায়, 'আসলে এই দাম পড়ার কারণ হল, বাজারে চাহিদা নেই, তেল জমিয়ে রাখার জায়গা কম৷ বিশ্বে উত্‍পাদনও কম হচ্ছে৷ আসলে লকডাউন, বিশ্বমন্দার জেরে তেলের ভাণ্ডার পূর্ণ হয়ে গিয়েছে৷ অবস্থা এমনই যে, কয়েক দিন পরে উত্‍পাদিত তেল রাখার জায়গা থাকবে না৷ ফলে দাম আরও পড়ার আশঙ্কা রয়েছে৷ 'গত ১৩ এপ্রিল নানা আলোচনা জল্পনার পর ওপেক প্লাস ও তেল উৎপাদক মিত্রদেশগুলো উৎপাদন কমানোর ঐতিহাসিক সমঝোতায় পৌঁছায়। দৈনিক ৯৭ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমানোর ব্যাপারে একমত হয়েছে শীর্ষ তেল উৎপাদক ও রপ্তানিকারকদের এই জোট, যা বিশ্বের মোট উৎপাদনের ১০ শতাংশ। তবে অনেক বিশ্লেষক মনে করছেন বর্তমানে পরিস্থিতি যে অবস্থায় গেছে এটি যথেষ্ট নয়।আন্তর্জাতিক সমীক্ষা সংস্থা ওয়ার্ল্ড ও মিটারের তথ্য অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে ৭ লাখেরও বেশি। মৃত্যু হয়েছে ৪২ হাজার ২৯৮ জনের। শুধু নিউ ইয়র্কেই করোনায় আক্রান্ত ২ লাখ ৪৭ হাজার ২৫০ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৮ হাজার ২৯৮ জনের।