আর্থিক সংকটে বন্ধ হয়েগেল ৫৩ বছরের দৈনিক কালান্তর

কালান্তর
কালান্তর

আজবাংলা প্রথমে সাপ্তাহিক পরে দৈনিক সংবাদপত্র হিসেবে পথ চলা শুরু করে কালান্তর। ১৯৬৫ সাল থেকে সিপিআইয়ের মুখপত্র হিসেবে কাজ করেছে। দলের মতাদর্শ প্রচারেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে কালান্তর। ১৯৬৬ সালে খাদ্য আন্দোলনের পটভূমিতে ভবানী সেনের উদ্যোগে পার্টি প্রথম সাপ্তাহিক কালান্তর প্রকাশ পায় ও পরে তা হয় দৈনিক । ২০১১ সালের পর থেকেই রাজনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়তে থাকে কালান্তর। আর্থিক সংকট চরম আকার নেয়। বাম বুদ্ধিজীবী ধর্মনিরপেক্ষতার হাতিয়ার ছিল কালান্তর। কমিউনিস্ট পার্টি ভাগ হওয়ার সময় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিল এই পত্রিকা। দীর্ঘদিনের এই কাগজে রাজনীতি ছাড়া আরও বিভিন্ন রকম খবর পাঠকের দরবারে পৌঁছে দিয়েছে এই সংবাদপত্র। সিপিআই এক শীর্ষ নেতা জানান, পাঁচ দশকের যাত্রায় আগেও দু”বার বন্ধ হয়েছে। কিন্তু কোনও না কোনও ভাবে ঘুরে দাঁড়াতে পেরেছে কালন্তর এবারও সেটাই হবে বলে মনে করেন পত্রিকার অ্যাসিস্ট্যান্ট এডিটর অনুপম দাশগুপ্ত । দলের তরফে অবশ্য বলা হয়েছে, আপাতত তাঁরা পাক্ষিক হিসাবে চালু রাখার চেষ্টা করবেন। এই কাগজের নামকরণ করেছিলেন প্রখ্যাত কবি বিষ্ণু দে। মাস্ট হেড এঁকেছিলেন স্বয়ং সত্যজিত্‍ রায়। একথা জানিয়ে কালান্তর পত্রিকার সম্পাদকমণ্ডলীর কার্যকরী চেয়ারম্যান পবিত্র সরকার বলেন, “দেশের ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে কালান্তর পত্রিকা।