প্রেমের সৌধে বাসা বেঁধেছে ভয়ঙ্কর প্রাণীর

প্রেমের সৌধে বাসা বেঁধেছে ভয়ঙ্কর প্রাণীর

আজবাংলা  এখন বিশ্বের সপ্তম আশ্চর্যের অন্যতম এই সৌধে লেগেছে আতঙ্কের ছোঁয়া। মমতাজকে উৎসর্গ করে করা শাহজাহানের অমর সৃষ্টি প্রেমের সৌধ থেকে মাঝেমধ্যেই বেরোচ্ছে বিষধর সাপ। এই ঘটনার পর থেকেই তাজমহলের সিআরপিএফ জওয়ানরা অ্যালার্ট হয়ে গেছেন৷ তাজমহলের মধেই সাপ দেখার সঙ্গে সঙ্গেই তারা বন দফতরকে খবর দেন৷ দিন পাঁচেক আগেই সাপ দেখা গিয়েছিল। এবার আবারো দেখা গেল একেবারে মারাত্মক রাটেল স্নেক। এই সাপটির প্রায় ৫ ফুট মতন লম্বা ছিল৷ ৫ দিন আগেই তাজমহলের জলের কুলারের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল একটি অজগর সাপ।

এখন লকডাউনের জেরে তাজমহল দীর্ঘ সময়ের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে। এইকারনে, একের পর এক জন্তু, জানোয়ার ইত্যাদি সব আশ্রয় নিতে শুরু করেছে। এরইমধ্যে পরপর দুটি বড় সাপ ধরা পড়ায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। এবার সাপটিকে পাওয়া যায় তাজমহলের ভিতরে থাকা পুলিশের কিয়স্ক থেকে। পুলিশ কিয়স্কে থাকা বীরপাল সিং নামে একজন প্রথম ওই সাপটিকে দেখতে পান৷ তারপর বন্যপ্রাণী দফতরের হেল্প লাইনে ফোন করা হয়। বনকর্মীরা সাপ দুইটিকে ধরে নিয়ে গিয়ে জঙ্গলে ছেড়ে দেন৷

এই প্রসঙ্গে বীরপাল সিং জানিয়েছেন, তারা পোস্টের কাছে এক অদ্ভুত আওয়াজ শুনছিলেন৷ তারা কাছে গিয়ে সাপের আকার আয়তন দেখে ঘাবড়ে যান। নিজে ভয় পেলে এই সাপ আওয়াজ বার করে৷ এই সাপটির সঙ্গে বিষাক্ত কোবরার কিছু মিল আছে। তবে, এই মারাত্মক বিষাক্ত সাপের কারনে কারুর প্রাণহানি হয়নি। ৫ দিন আগেও বিশাল ৭ ফুট অজগর বেরিয়েছিল৷ তাজমহলের কাছের মিউজিয়ামের কাছের জলের কুলারের কাছ থেকে বার করা হয়েছিল সাপটিকে। সেই সাপটিকেও বন দফতরের লোক এসে উদ্ধার করে। আবার এরই মধ্যেই তাজমহলের কাছের এক জায়গা থেকে ৪ ফুট লম্বা ব্ল্যাক হেডেড রয়্যাল স্নেকের খোঁজ পাওয়া গিয়েছিল৷ তাকেও উদ্ধার করে জঙ্গলে ছেড়ে আসা হয়৷