এক বছর পরে উত্তর দিনাজপুর বোর্ডার দিয়ে দেশে ফিরলো বাংলাদেশি নাবালক

আজবাংলা উত্তর দিনাজপুর এক বছর পরে উত্তর দিনাজপুর বোর্ডার দিয়ে দেশে ফিরলো এক বাংলাদেশি নাবালক। একটা বছর ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জ ব্লকের কুনরের হোমে কাটিয়ে সিয়াম ইসলাম বুধবার বাংলাদেশের দিনাজপুরে মায়ের কাছে ফিরলেও ফেরা হয়নি একসাথে হোমে থাকা বাংলাদেশের অপরজন সিয়ামের বন্ধু আরিফ হোসেনের।উত্তর দিনাজপুরের কুনোর সিএম সিপি হোমের সুপার তপন মাইতি জানান বাংলা দেশ থেকে আসা দুই কিশোর এই হোমে থেকে পড়াশোনা করছিল।বুধবার হিলি সীমান্ত দিয়ে সিয়াম ইসলামকে সরকারি নিয়মকানুন মেনে বাংলাদেশের সরকারি আধিকারিকদের হাতে তুলে দিলেও আরিফ হোসেনকে পাঠানো গেলনা কিছু ভুলের জন্য।তবে তাকেই দ্রুত যাতে বাড়ী ফেরানো যায় সে ব্যাপারে তারা সচেষ্ট।উত্তর দিনাজপুর জেলা শিশু কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান অসীম রায় বলেন দুই বন্ধুর মধ্যে এক বন্ধুকে পাঠানো হল অপর জনকেও খুব দ্রুত পাঠানোর ব্যবস্থা আমরা করবো বলে জানান।জানা যায় বাংলা দেশের এক মাদ্রাসায় সিয়াম ইসলাম ও আরিফ হোসেন পড়াশোনা করতো।হটাৎ করে সহ পাঠীদের সাথে মারপিট করে দিক ভুল করে ভারত সীমান্তে এলে সেখানে বি এস এফের হাতে ধরা পড়ে যায় দুজনেই।এর পর গত গত ১০ই সেপ্টেম্বর উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জের কুনোর হোমে এদের দুজনের ঠাঁই হয়। তবে আরিফ হোসেন সিয়ামের সাথে বাড়িতে যেতে না পারায় ওর ভীষন মনঃকষ্ট।তাকে আরো কতদিন হোমে থাকতে হবে এখন তার এই চিন্তা কুরে কুরে খাচ্ছে। বাংলাদেশে সিয়ামের মা অবরোজা বেগম বুধবার তার ছেলেকে একবছর পর কাছে পেয়ে যেন আকাশের চাঁদ হাতে পেয়েছে