নিজামের সম্পত্তিতে কোনও অধিকার নেই পাকিস্তানের! ভারতের পক্ষেই রায় লন্ডনের হাইকোর্টের

নিজাম ওসমান আলি খান
নিজাম ওসমান আলি খান

আজবাংলা ১৮৪৮ সালে হায়দরাবাদের তৎকালীন নিজাম ওসমান আলি খান ব্রিটেনে পাকিস্তান হাইকমিশনারের কাছে ১০ লক্ষ পাউন্ড নিরাপদে রাখার জন্য দিয়েছিলেন। দেশ ভাগের সময় ওসমান আলি খান পাকিস্তানের সঙ্গে যোগ দিলেও থেকে যান ভারতেই। তাঁর শেষ জীবন কাটে ভারতেই। ১৯৬৭ সালে হায়দরাবাদের নিজামদের প্রাসাদেই তাঁর মৃত্যু হয়। ওসমান আলি খানের জীবদ্দশায় ওই টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু সে সময় থেকেই পাকিস্তানের হাইকমিশনার হাবিব ইব্রাহিম রহিমতোলার ন্যাটওয়েস্ট ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টে ওই বিপুল অর্থ গচ্ছিত রাখা হয় এবং ওই অর্থ নিজেদের বলেই দাবি করে পাকিস্তান।৭০ বছর ধরে চলা আইনি লড়াইয়ে ফল মিলল গতকাল বুধবার। ব্রিটেনের হাইকোর্ট রায় দিয়েছেন, পাকিস্তানের এই সম্পত্তির ওপর কোনো ধরনের অধিকার নেই। এর পূর্ণ মালিকানা নিজাম ওসমান আলি খানের বংশধরদের। তবে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, রায়ের পূর্ণ বিবরণ জানার পর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে তারা। ব্রিটেনের আদালতের এ রায়ে পাকিস্তান আন্তর্জাতিক আঙিনায় আরেকবার ভারতের কাছে পিছিয়ে পড়ল। বুধবার ব্রিটেনের হাইকোর্ট এক রায়ে জানিয়ে দিয়েছেন, পাকিস্তানের এই সম্পত্তির ওপর কোনো অধিকার নেই। এর পূর্ণ মালিকানা ওসমান আলি খানের বংশধরদের। ন্যাটওয়েস্ট ব্যাঙ্কে গচ্ছিত নিজাম ওসমান আলি খানের সেই ১০ লক্ষ পাউন্ড বর্তমানে সুদে-আসলে বেড়ে হয়েছে প্রায় ৩.৫ কোটি পাউন্ড। ভারতীয় মূদ্রায় যা প্রায় ৩০৬ কোটি টাকা। ২০১৩ সালে পাকিস্তান‌ দাবি করে, নিজাম ওসমান আলি খানের ওই অর্থ তাদের সরকারের প্রাপ্য। লন্ডনের ‘রয়্যাল কোর্টস অব জাস্টিস’-এ বিচারক মার্কাস স্মিথ পাকিস্তানের এই দাবি ‌নস্যাৎ করে জানিয়ে দেন, এই দাবির সপক্ষে তেমন কোনও প্রমাণ মেলেনি। তাই নিজামের ওই সম্পত্তিতে পাকিস্তানের কোনও অধিকার নেই।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!