নোয়াপাড়ার বিজেপি বিধায়ক সুনীল সিং এর বাড়িতে পুলিশি হানায় তীব্র চাঞ্চল্য এলাকায়।

নোয়াপাড়ার বিজেপি বিধায়ক সুনীল সিং
নোয়াপাড়ার বিজেপি বিধায়ক সুনীল সিং

আজবাংলা বারাকপুর তৃণমূল ছেড়ে মাসকয়েক আগেই বিজেপিতে গিয়েছেন বিধায়ক নোয়াপাড়ার বিধায়ক সুনীল সিং। বৃহস্পতিবার বিকেলে জগদ্দল থানা, নোয়াপাড়া থানা ও বারাকপুর থানার পুলিশ হঠাত্‍ করে সুনীল সিং পৈতৃক বাড়িতে তল্লাশি চালানোর জন্য আসে বলে খবর। সেই খবর শোনা মাত্রই শিক্ষক দিবসের একটি অনুষ্ঠান থেকে তরিঘরি ছুটে আসেন বিধায়ক সুনীল সিং।পুলিশের কাছে তাদের বাড়ি তল্লাশি চালানোর আইনী নির্দেশ দেখতে চান সুনীল সিং । কিন্তু পুলিশের কাছে সেই আইনী কাগজ ছিলনা না বলে জানান সুনীল সিং। তবে আইনী কাগজ না থাকা সত্ত্বেও সুনীল সিং এবং তার দাদা ভান সিং পুলিশকে তাদের কাজে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করেছেন বলে তিনি দাবি করেছেন নোয়াপাড়ার বিধায়ক।যদিও এদিন পুলিশের এই তল্লাশি অভিযান থেকে কিছু পায়নি বলে দাবি বিধায়কের।নোয়াপাড়ার বিধায়ক সুনীল সিং অভিযোগ করেন যে,’ নোয়াপাড়া বিধানসভা এলাকাকে অশান্ত করবার চেষ্টা করছে তৃণমূল কংগ্রেস ও সরকারের পুলিশ। আমার বাড়িতে বা বিজেপি শাসিত গারুলিয়া পৌরসভা এলাকাতে কোথাও কোন গন্ডগোলের ঘটনা ঘটেনি। তাও পুলিশ আজ আমাদের বাড়ি কোন আইনী কাগজ ছাড়াই তল্লাশি করে গেল, আমরা প্রশাসনের সাথে সহযোগিতা করেছি। কিন্তু পুলিশের এই ধরনের অত্যাচার আমরা বেশি সহ্য করবো না। তৃণমূল কংগ্রেস ও পুলিশ প্রশাসন বিজেপির নেতা কর্মীদের ওপর চাপ সৃষ্টি করার চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু বিজেপিকে এই ভাবে সরানো যাবে না।সম্প্রতি মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছিলেন, সুনীল সিং তৃণমূলে আসার জন্যে চেষ্টা চালাচ্ছেন। এদিনের তল্লাশির পর অবশ্য সুনীল সিং দাবি করেছেন, বিরোধী রাজনীতি করার জন্যেই তাঁকে হেনস্থা করছে তৃণমূল।

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!