বেজিংয়ের বিভিন্ন এলাকা থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো আরবি শব্দ ও ইসলামিক চিহ্ন

আজবাংলা চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে খাবারের দোকান থেকে ‘হালাল’ লেখসহ সব ধরনের আরবি হরফ মুছে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। জানা গেছে, ইসলাম সম্পর্কিত সব ধরনের আরবি হরফ মুছে ফেলার নির্দেশনা সম্প্রতি জারি করেছে দেশটির সরকার। একই সঙ্গে বিভিন্ন সরকারি নিয়ন্ত্রক সংস্থার কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে এই আদেশ তামিল করতে সংশ্লিষ্টদের বাধ্য করছেন সম্প্রতি একটি আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা বেজিং শহরে হালাল পণ্য বিক্রি করে এমন ১১টি রেস্তরাঁ ও দোকানের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে। সেই সংবাদসংস্থাকে ওই সব রেস্তোরাঁর কর্মীরা জানান, ইসলাম ধর্মের সঙ্গে সম্পর্কিত সব ধরনের প্রতীকই সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যেমন, অর্ধেক চাঁদ বা আরবিতে লেখা ‘হালাল’ শব্দ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সেখানকার এক রেস্তোরাঁর মালিক ওই সংবাদ সংস্থাকে বলেছেন, ‘‘চিনা কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে এগুলো বিদেশি সংস্কৃতি।তবে আরবি হরফ সরিয়ে ফেলার এই অভিযান চীনে নতুন নয়। ২০১৬ সাল থেকে এই অভিযান গতি পায়। এর পর থেকে চীনজুড়ে মধ্যপ্রাচ্যের সংস্কৃতি নির্ভর বিভিন্ন স্থাপনা সরিয়ে ফেলা হচ্ছে। দেশজুড়ে অনেক মসজিদের গম্বুজ সরিয়ে ফেলেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। এর পরিবর্তে চীনা রীতির প্যাগোডা নির্মাণকে উৎসাহিত করা হচ্ছে। তাই আমাদের আরও বেশি করে চিনা সংস্কৃতির দিকে নজর দেওয়া উচিত। চীনে প্রায় ২ কোটি মুসলিমের বাস। তবে চীনের এই কাজকে সমর্থন করেছে তিরিশটিরও বেশি সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম দেশ এই দেশ গুলি এক যৌথ বিবৃতিতে চীনের প্রশংসা করেছে। এসব দেশের তালিকায় আছে পাকিস্তান, সৌদি আরব, মিসর, সংযুক্ত আরব আমিরাত, আলজেরিয়া, কাতার, ফিলিপাইনসহ এশিয়া, আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ। এই যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মানবাধিকার রক্ষায় চীনের অর্জন প্রশংসাযোগ্য।