রিপাবলিকান না ডেমোক্রেটিক, কার দখলে কংগ্রেসের নিয়ন্ত্রণ?

Republicans are not democratic, who occupies
আমেরিকা

আজবাংলা  মধ্যবর্তী নির্বাচনে প্রতিনিধি পরিষদের ৪৩৫ আসনের সব কটিতে এবং সিনেটের ৩৫টি আসনে ভোট হচ্ছে। এ ছাড়া ৩৬টি অঙ্গরাজ্যের গভর্নর পদসহ রাজ্য আইনসভারও নির্বাচন হচ্ছে, যা আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আইনসভার দুই কক্ষেই বর্তমানে সংখ্যাগরিষ্ঠ দল রিপাবলিকান। প্রতিনিধি পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে হলে ডেমোক্র্যাটদের বর্তমান আসনগুলোর পাশাপাশি আরও ২৩টি আসনে জিততে হবে। সিনেটের হিসাব আপাত অর্থে সহজ। সেখানে ডেমোক্র্যাটদের প্রয়োজন বাড়তি দুটি আসন।  এ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ক্ষমতার কোনো পালাবদল না হলেও আইনসভার দুই কক্ষেই সংখ্যাগরিষ্ঠতার হিসাব বদলে যেতে পারে। রিপাবলিকান দল নিয়ন্ত্রিত বর্তমান কংগ্রেসের দুই কক্ষেরই নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বিরোধী ডেমোক্রেটিক দলের। এ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ক্ষমতার পালাবদল না হলেও ট্রাম্প প্রশাসনের প্রতি মানুষের মনোভাব জানা যাবে। আর এই জনমতের ওপরই নির্ভর করছে বর্তমান প্রশাসনের গৃহীত বিভিন্ন আলোচিত-সমালোচিত পদক্ষেপের ধারাবাহিকতার বিষয়টি। ৫ নভেম্বর ইন্ডিয়ানার ফোর্ট ওয়েনে দেওয়া প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বক্তব্যে এই অনিশ্চয়তার বিষয়টি স্পষ্ট হয় আরও ভালোভাবে। ওই বক্তব্যে ট্রাম্প বলেন, ‘আমাদের এত দিনের সব অর্জন আজ ঝুঁকির মুখে রয়েছে।’ এবারের মধ্যবর্তী নির্বাচনে ব্যাপক ভোটার উপস্থিতি হবে বলে আশা করা হচ্ছে। আজ প্রথম ভোট গ্রহণ শুরু হয় পূর্ব উপকূলের অঙ্গরাজ্য মেইন, নিউ হ্যাম্পশায়ার, নিউজার্সি, নিউইয়র্ক ও ভার্জিনিয়ায়। অগ্রিম ভোটের হিসাবে এরই মধ্যে ২০১৪ সালকে ছাড়িয়ে গেছে। এবারের নির্বাচনে আগাম ভোট পড়েছে ৩ কোটি ৪৩ লাখ। ২০১৪ সালে এ সংখ্যা ছিল ২ কোটি ৭৫ লাখ। নির্বাচনে সিনেট ও প্রতিনিধি পরিষদ দুটিতেই রিপাবলিকানরা সংখ্যাগরিষ্ঠতা ধরে রাখতে পারলে তারা ট্রাম্প ঘোষিত লক্ষ্য অর্জনের পথে এগিয়ে যাবে। কিন্তু যদি কোনো একটিতে বা দুটিতেই তারা সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারায় তবে ডেমোক্র্যাটরা ট্রাম্পের পরিকল্পনাগুলোকে ঠেকিয়ে দিতে, এমনকি উল্টো পথে চালিতও করতে পারে। এবারের নির্বাচনে তহবিল সংগ্রহের দিক থেকেও এগিয়ে রয়েছে ডেমোক্র্যাটরা। প্রতিনিধি পরিষদে ডেমোক্র্যাট প্রার্থীরা বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে মোট ৬৪ কোটি ৯০ লাখ ডলারের তহবিল সংগ্রহ করেছে। বিপরীতে রিপাবলিকান দলের প্রার্থীদের সংগৃহীত তহবিলের পরিমাণ ৩১ কোটি ২০ লাখ ডলার। এই সবকিছু মিলিয়ে ডেমোক্র্যাটরা এবারের নির্বাচনে বড় ধরনের বিজয়ের স্বপ্ন দেখছে।