মহিলাদের টি-২০ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে ঢুকে পড়ল শিলিগুড়ির রিচা ঘোষ

আজবাংলা   ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে অস্ট্রেলিয়ায় শুরু হচ্ছে টি-২০ বিশ্বকাপ। তার আগে একটি ত্রিদেশীয় সিরিজও খেলবে ভারত। এই সিরিজের অপর দু’টি দল অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড। এই সিরিজের জন্য ১৬-সদস্যের ভারতীয় দল ঘোষণা করা হয়েছে।মহিলাদের চ্যালেঞ্জার ট্রফিতে ঝোড়ো ব্যাটিং করার সুবাদেই ভারতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন শিলিগুড়ির রিচা ঘোষ।

বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত ভারতীয় দল- হরমনপ্রীত কউর (অধিনায়ক), স্মৃতি মন্ধানা, শেফালি বর্মা, জেমাইমা রডরিগেজ, হারলিন দেওল, দীপ্তি শর্মা, বেদা কৃষ্ণমূর্তি, রিচা ঘোষ, তানিয়া ভাটিয়া, পুনম যাদব, রাধা যাদব, রাজেশ্বরী গায়কোয়াড়, শিখা পাণ্ডে, পূজা বস্ত্রকর ও অরুন্ধতী রেড্ডি। মহিলাদের চ্যালেঞ্জার ট্রফিতে এক ম্যাচে ইন্ডিয়া সি দলের বিরুদ্ধে ১৪৯ রান তাড়া করতে নেমে টানটান উত্তেজনার মধ্যে ২৬ বলে ৩৬ করেছিল রিচা।

যাতে ছিল চারটি চার ও একটি ছয়। সেই ইনিংসই জাতীয় নির্বাচকদের নোটবুকে নাম তোলে।রিচা অবশ্য শুধুই ব্যাটিং করে তা নয়। বরং এমন প্রশ্ন রাখাই যায় যে, রিচা ঠিক কী করে না? ব্যাট হাতে যেমন শুধু মিডল অর্ডারেই নামে না, প্রয়োজনে ওপেনিংও করতে পারে। আবার নতুন বল হাতে মিডিয়াম পেসেও যথেষ্ট দক্ষ। নিয়মিত উইকেটও আসছে। এমনকি উইকেটকিপার হিসেবেও দিব্যি চালিয়ে দিতে পারে।রিচার আদর্শ এমন একজন ক্রিকেটার যিনি নিজেও কম বয়সে অভিষেক ঘটিয়েছিলেন। অবধারিত ভাবেই তিনি সচিন তেন্ডুলকর। ১৫ বছর বয়সে টেস্টের দুনিয়ায় প্রবেশ করেছিলেন মুম্বইকর। বঙ্গতনয়া সেখানে ফেব্রুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ায় কুড়ি ওভারের বিশ্বকাপে নীল রঙা জার্সি গায়ে চাপাতে চলেছেন। রিচার কথায়, “আমার আইডল সচিন। নিয়মিত ভিডিয়ো দেখি ব্যাটিংয়ের। সচিনের নানা শট ভাল লাগে। কভার ড্রাইভ, লফটেড মারার চেষ্টা করি। সচিনের পর থাকছে ধোনি।”

এমন সমস্ত আপডেট পেতে লাইক দিন!