মেয়র পদ থেকেও ইস্তফা দিলেন শোভন। কে হচ্ছেন মেয়র?

শোভন চট্টোপাধ্যায়
শোভন চট্টোপাধ্যায়

আজবাংলা বৃহস্পতিবার পদত্যাগপত্র জমা দিতে শোভন নিজে পুরসভার অফিসে যাননি। বৃহস্পতিবার সকালে শোভনের বাসভবন থেকে গাড়িতে পদত্যাগপত্র নিয়ে পুর অফিসে রওনা দেন তাঁর নিরাপত্তা রক্ষীরা| পুর চেয়ারম্যান মালা রায়ের ঘরে ঢুকে শোভনের পদত্যাগপত্র জমা দেন নিরাপত্তা রক্ষীরা। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মালা রায় জানিয়েছেন, শোভনের ইস্তফাপত্র গ্রহণ করেছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশ দিয়েছিলেন, তাই করলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়।প্রবল চাপে পড়ে গত মঙ্গলবারই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়।এবার মেয়র পদ থেকেও তিনি ইস্তফা দিলেন। কলকাতা পুরসভার আইন, ১৯৮০’এর ক্ষেত্রে কিছু সংশোধনের ব্যাপারে গভীরভাবে চিন্তা করছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। তার কারণ, পুরসভার বর্তমান মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পদত্যাগ করার নির্দেশ দেওয়ায় তাঁর জায়গায় ক্ষমতায় কে আসবেন, এলেও কীভাবে তিনি মেয়র হিসেবে নিজের কাজ শুরু করবেন, তা নিয়ে চিন্তার ভাঁজ পুরকর্তাদের কপালে।  কিন্তু সমস্যা অন্যত্র। বর্তমানের পুর আইন অনুসারে, মেয়র পদের নির্বাচিত প্রার্থী অথবা কাউন্সিলরই কেবল বসতে পারবেন ওই পদে। নতুন আইনটি বলবৎ করার চেষ্টা করছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।  বিধানসভার চলতি শীতকালীন অধিবেশনেই ওই পুর আইনটির সংশোধনের প্রস্তাব তোলা হবে। “বৃহস্পতিবার এই নিয়ে বিধানসভাতে আলোচনার সম্ভাবনাও রয়েছে।