পাকিস্তানে জোর করে শিখ তরুণীকে ধর্মান্তর করে বিয়ের অভিযোগ মুসলিম যুবকের বিরুধে

আজবাংলা পাক পঞ্জাব প্রদেশের নানকানা সাহিবে শিখ তরুণীকে অপহরণ করে ধর্মান্তর এবং মুসলিম যুবকের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার অভিযোগ। লাহোরের নানকানা সাহিব এলাকায় এক শিখ গ্রন্থি-র মেয়ে জগজিত্ কউর দিন তিনেক আগে নিখোঁজ হয়ে যায়। মেয়ের বাবা ভগবান সিং তাম্বু সাহিবের একটি গুরুদ্বারের গ্রন্থি। পরিবারের অভিযোগ, বন্দুক দেখিয়ে ঘর থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল জগজিত্ কউরকে।তিন দিন নিখোঁজ থাকার পর বৃহস্পতিবার লাহোরে খোঁজ মিলল এক অপহৃত শিখ তরুণীর। ততক্ষণে তাকে জোর করে ধর্মান্তর করা হয়ে গিয়েছে এবং তাঁর বিয়ে দেওয়া হয়েছে এক মুসলিম তরুণের সঙ্গে। একটি ভিডিয়োতে ওই তরুণী তাঁর ইসলাম গ্রহণ করার কথা স্বীকার করেছেন। সেই ভিডিয়ো এখনই ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।ওই তরুণীর বাবা ভগবান সিংহ নানকানা সাহিব শহরের তাম্বু সাহিব গুরুদ্বারের গ্রন্থি। তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে এহসান নামে এক মুসলিম যুবক ও তাঁর ৬ ভাইয়ের বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও তরুণীর পরিবারের অভিযোগ, মামলা তুলে নেওয়ার জন্য ক্রমাগত তাঁদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। তদন্তে গুরুত্বই দিচ্ছে না পুলিশ। এই অপহরণ ও ধর্মান্তরকরণের ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে লাহোরের শিখদের মধ্যে। বিষয়টি নিয়ে নানকানা সাহিব গুরুদ্বারে একটি বৈঠকও হয়েছে। এনিয়ে সক্রিয় দিল্লির শিখ গুরুদ্বার পরিচালন কমিটি ও অকালি দল নেতা মনজিন্দর সিং সিরসা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্করকে এনিয়ে উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তাঁরা।