লকডাউনে আটকে পড়া স্প্যানিশ মহিলাটি জীবন উপভোগ করছেন ভারতের এই বিশেষ গ্রামে

লকডাউনে আটকে পড়া স্প্যানিশ মহিলাটি  জীবন উপভোগ করছেন ভারতের এই বিশেষ গ্রামে
spanish woman enjoys village life in India due to lockdown

আজ বাংলা     একটি স্প্যানিশ পর্যটক নিজের জীবন উপভোগ করছেন কর্ণাটকের, উদুপি জেলার ছোট্ট গ্রামে। লকডাউনের কারণে অনেকেই অনেক সমস্যায় পড়েছেন। করোনা মহামারী সারা পৃথিবীর গতি যেন থামিয়ে দিয়েছে। কিন্তু কথায় আছে কারোর পৌষ মাস তো কারোর সর্বনাশ। স্প্যানিশের এই মহিলাটি এসেছিলেন ভারতবর্ষ ঘুরতে, কিন্তু ফিরে যাবে অর্ধেক ভারতীয় হয়ে। মহামারীর কারণে আটকে পড়াতে এই মহিলা ভারতের গ্রাম্যজীবন উপভোগ করতে ছাড়ছেন না। এখানকার স্থানীয় ভাষা, সংস্কৃতি এবং পদ্ধতি শিখে নিজেকে বেশ গর্ব উপলব্ধি করছেন।

নাম ট্রেসা সোরিয়ানো ,স্প্যানিশের ভ্যালেন্সিয়া শহরে শিল্প ডিজাইনার হিসেবে কাজ করেন। এখানে থেকে বেশ কয়েকটা কন্নড ভাষায় কথা বলতে শিখে গেছেন। ট্রেসা হেৰাঞ্জল গ্রামে ওনার বন্ধুর বাড়িতে বসবাস করছেন।"আমি খুবই ভাগ্যবান যে লকডাউনের সময়ে এই গ্রাম্য এলাকায় থাকার সুযোগ পেয়েছি।  শহরের তুলনায়, মানুষেরা গ্রামে বেশি নিরাপদ। আমাদের এখানে পুরো স্বাধীনতা আনন্দ উপভোগ করার ও প্রাকৃতিক পরিবেশে ঘুরে বেড়ানোর।", জানালেন ট্রেসা ।

ট্রেসার ভারত ভ্রমণ এটাই প্রথম। তিনি আরও বললেন, "আমি অনেক নতুন কিছু শেখার সুযোগ পাচ্ছি। হেৰাঞ্জলে আমার সুবিধাজনক পরিস্থিতি আছে, নতুন  অভিজ্ঞতা উপলব্ধি করছি যেমন চিনাবাদাম চাষ, গরুর গোদোহন করা , ধান রোপন করা, নদীতে মাছ ধরা, বন জঙ্গল  থেকে পাতা সংগ্রহ করা, রঙিন নিদর্শন তৈরি করা ও নারকেল পাতা থেকে ঝাড়ু তৈরি করা।" ট্রেসা প্রায় এক বছর থেকে ভারতে আসার পরিকল্পনা করছিলেন নিজের ভাই কার্লোস ও বন্ধু কৃষ্ণা পূজারীর থেকে এই দেশের মহান কীর্তির কথা শুনে। মার্চে ট্রেসা নিজের প্রেমিকের সাথে ভারত ও শ্রীলংকা ভ্রমন করার পরিকল্পনা করেন। কিন্তু সব ভেস্তে গেলো মহামারীর কারণে। ট্রেসার প্রেমিক স্পেনে ফিরে যায় আর আটকে পরে ট্রেসা কর্ণাটকেই। যদিও , এটায় তার কোনো অনুতাপ নেই কারণ সে এই অবকাশে জীবনের নতুন কিছু অভিজ্ঞতা করার সুযোগ পেলেন।