রহস্যজনক অবস্থায় এক ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য

ইংরেজবাজার থানা
ইংরেজবাজার থানা
আজবাংলা মালদা : রহস্যজনক অবস্থায় এক ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল মালদার একটি প্রতিষ্ঠিত ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ।শুক্রবার সকালে ওই ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ কর্তৃপক্ষ ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ দেখে ইংরেজবাজার থানার পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে ওই ছাত্রের দেহটি উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজের মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানোর ব্যবস্থা করে। পুলিশ জানিয়েছে,  মৃত ছাত্রের নাম শ্যামসুন্দর মন্ডল (২১)।  তার বাড়ি নদীয়া জেলার কৃষ্ণনগর থানার তেহটটো এলাকায়। মালদা শহরের কাজিগ্রাম এলাকায় অবস্থিত আইএমপিএস ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের তৃতীয় বর্ষের কম্পিউটার সায়েন্স নিয়ে পাঠরতা ছিল ওই ছাত্র। ওই কলেজের হোস্টেলে থেকে পড়াশোনা করত সে।  এদিন সকালে ওই কলেজ কর্তৃপক্ষের কয়েকজন শিক্ষক স্পোর্টস রুমের মধ্যে শ্যামসুন্দর মন্ডলের ঝুলন্ত দেহটি দেখতে পান।  আর তারপরই শোরগোল পড়ে যায় । যদিও ওই ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে পরিষ্কারভাবে কলেজ কর্তৃপক্ষ কিছু জানাতে চাননি।  প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানিয়েছে,  মৃত ছাত্রের দুটি হাতেই ব্লেড জাতীয় ধারালো কিছু অস্ত্রের আঘাত রয়েছে।  দুই হাতের শিরাও কাটা ও রক্ত প্রায় চাপ ধরে শুকিয়ে গিয়েছিল।  এই অবস্থায় ওই ছাত্র কিভাবে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হলেন সেটাও প্রশ্নের বিষয় । এই ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজটি মালদার প্রতিষ্ঠিত কলেজ হিসেবে পরিচিত।  ওই কলেজের হোস্টেলে থাকত শ্যামসুন্দর মন্ডল । বিহার, ঝাড়খন্ড এবং এই রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে বহু ছাত্রছাত্রীরা এই কলেজের হোস্টেলে থেকে পড়াশোনা করেন। শ্যামসুন্দর মন্ডল তাদের মধ্যে ছিল একজন। পুলিশ জানিয়েছে , কোন সময় শ্যামসুন্দর মন্ডল  মারা গিয়েছে সেটি ময়নাতদন্তের রিপোর্ট ছাড়া কিছুই বলা যাচ্ছে না । তবে যদি রাতে এই ঘটনাটি ঘটে থাকে । তাহলে স্পোর্টস রুম কেন খোলা ছিল। হোস্টেল কর্তৃপক্ষ কেন নজরদারিতে বিমুখ ছিল। তাছাড়াও হোস্টেল থেকে রাতে বেরিয়ে ওই ছাত্র স্পর্টস রুমে কি করে গেল সেটাও প্রশ্নের বিষয় । ওই ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ কর্তৃপক্ষ এবং হোস্টেল কর্তৃপক্ষকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এদিকে আইএমপিএস ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের প্রিন্সিপাল অবশ্য এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে চান নি । ওই কলেজেরই এক  শিক্ষক অনির্বাণ দত্ত জানিয়েছেন , সকালে খবর পেয়ে কলেজে ছুটে যায়। শ্যামসুন্দর মন্ডল খুবই  মেধাবী ছাত্র ছিল । হঠাৎ করে ওর এরকম রহস্যজনক মৃত্যুতে আমরা হতবাক হয়ে গিয়েছি।  তবে কেন তার এই ভাবে মৃত্যু হল সে ব্যাপারে কিছুই বলতে পারবো না। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান,  প্রেমঘটিত কারণেই হয়তো ওই ছাত্র আত্মঘাতী হয়ে থাকতে পারে । তবে এর বাইরে অন্য কোন ঘটনা রয়েছে কিনা তা নিয়েও তদন্ত শুরু করা হয়েছে।