মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরাতে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল

আজবাংলা   মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরানোর জন্য এবার মামলা দায়ের হল সুপ্রিম কোর্টে। ভারাকি নামে এক সাংবাদিক সোমবার শীর্ষ আদালতে এই আবেদন করেছেন বলে জানা গিয়েছে। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ২০১৯ নিয়ে রাষ্ট্রসংঘ-এর তত্ত্বাবধানে গণভোট আয়োজন করার কথা বলায় মমতা বন্দোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে এই আবেদন করেছেন জনৈক সাংবাদিক বরাকি। এদিন আদালতে তাঁর হয়ে পিটিশনটি দাখিল করেন আইনজীবী দিব্যজ্যোতি সিং। সিএএ বিরোধী জনসমাবেশে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে গণভোটেরও দাবি তোলেন মমতা ব্যানার্জি। এই গণভোটের দায়িত্বই রাষ্ট্রপু্ঞ্জকে দিতে চেয়েছিলেন তিনি। আর তানিয়েই বিরোধ চরমে উঠল। যদিও নিজের বক্তব্যের মর্মার্থ উপলব্ধি করে পরের দিনই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন তৃণমূল নেত্রী। তবে ততক্ষণে দেরি হয়ে গিয়েছে।মমতার এই বক্তব্য ভারতীয় সংবিধানের বিরোধী বলে অভিযোগ করেছেন সাংবাদিক ভারাকি। তাঁর আবেদনে বলা হয়েছে যে মমতার এই বক্তব্যেই স্পষ্ট যে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী দেশের অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্বে বিশ্বাস করেন না। যে শপথ নিয়ে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসেছিলেন, এই বক্তব্যের ফলে সেই শপথ বাক্য তিনি খণ্ডন করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে।এদিকে দেশের অভ্যন্তরীণ ডামাডোলে রাষ্ট্রপুঞ্জকে জড়ানোর কারণে আজ সুপ্রিম কোর্টে তাঁর বিরুদ্ধে পিটিশিন দাখিল করা হল। আবেদনে স্পষ্ট জানানো হয়েছে মমতা ব্যানার্জি যেন কোনওভাবেই আর মুখ্যমন্ত্রীর পদে না থাকতে পারেন। রাজ্যাপাল যেন সেই দিকটা দেখেন। অর্থাত্‍ মমতাকে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরানোর দায়িত্ব যেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর নেন।।